SylhetNews24.com

রেলমন্ত্রীকে চিঠির বিষয়ে তিনি আমাকে কিছু বলেননি: পরিকল্পনামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

সিলেট নিউজ ২৪

প্রকাশিত : ১১:৩৪ পিএম, ১৫ জুন ২০২১ মঙ্গলবার

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে কোনও দ্বন্দ্ব নেই বরং তারা একে অন্যের পুরোনো বন্ধু বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

সিলেট ও সুনামগঞ্জের কিছু সংবাদ মাধ্যমে পরিকল্পনামন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দ্বন্দ্বের কথা উল্লেখ করে প্রতিবেদন প্রকাশ ও পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ফেসবুক পোস্ট প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী মঙ্গলবার জাতীয় একটি পত্রিকাকে একথা জানান।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘মোমেন আমার পুরোনো বন্ধু, আমাদের দুজনের কোনও দ্বন্দ্ব নেই। তবে ছাতক-সুনামগঞ্জ-মোহনগঞ্জের রেল লাইন নিয়ে রেলমন্ত্রীকে দেওয়া চিঠির বিষয়ে মোমেন কিছুই আমাকে বললেন না, পরবর্তীতে এ নিয়ে দেওয়া ফেসবুক স্ট্যটাসেও তিনি চিঠির বিষয়ে কিছু বললেন না।’

তিনি বলেন, ‘মোমেন আমার ৫০ বছরের বন্ধু, সুখে-দু:খে আমরা একসঙ্গে আছি, থাকব, সব কথাই তিনি ফেসবুক স্ট্যাটাসে ঠিক লিখেছেন। আমরা দু'জন একসঙ্গে মন্ত্রী সভায়ও কাজ করছি, তিনি রেলমন্ত্রীকে ছাতক-সুনামগঞ্জ-মোহনগঞ্জের রেল লাইনের বিষয়ে চিঠি লিখলেন, আমার প্রসঙ্গও তাতে এনেছেন, কিন্তু আমার সঙ্গে কথা বলেননি।’

মন্ত্রী বলেন, সুনামগঞ্জের সংসদ সদস্য পাঁচজন লিখেছেন তিনি, সুনামগঞ্জের সংসদ সদস্য আমিও, আমাকে তিনি বাদ দিলেন কেন। 
আমার সঙ্গে কথা বলেই তিনি এই  প্রসঙ্গে রেলমন্ত্রীকে চিঠি লিখতে পারতেন। পরে মোমেন তার ফেসবুক আইডিতে দেওয়া স্ট্যটাসেও রেলমন্ত্রীকে চিঠি দেবার প্রসঙ্গটি এড়িয়ে গেছেন।

এরআগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন সোমবার তার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের সঙ্গে তার কোনও দ্বন্দ্ব নেই।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিখেছেন, 'মান্নান আমার বন্ধু, মান্নানের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ৫০ বছরের অধিক। আমি এবং মান্নান সুখে-দুঃখে সবসময়ই ছিলাম এবং আছি, ভবিষ্যতেও আমৃত্যু থাকব বলেই আশা করি। দুঃখজনক যে, সিলেটের একটি স্থানীয় সংবাদপত্রে দেখলাম আমার এবং মান্নানের মধ্যে নাকি দ্বন্দ্ব রয়েছে এবং এই দ্বন্দ্বের কারণে নাকি সিলেটের অনেক উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে! কে বা কারা এই সংবাদটি প্রচার করছেন জানি না তবে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং বানোয়াট।'

তিনি বলেন, 'যে বা যারা এটি প্রচার করছেন, তারা হয়তো বা কোনও বিশেষ বা অসৎ উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য করছেন। ফেসবুকে এই স্ট্যাটাসটির প্রয়োজন আছে বলে মনে করছি না, তবে একটি বিশেষ কারণে দিচ্ছি আর তা হল আমার এবং মান্নানের স্থানীয় অনেক শুভাকাঙ্ক্ষী রয়েছেন আর তাদের মধ্যে যাতে কোনো বিভ্রান্তির সৃষ্টি না হয়।'