SylhetNews24.com

সিকৃবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে উত্তাল নগরী, ৩ দিনের কর্মসূচি

সিলেট নিউজ ২৪

প্রকাশিত : ১২:৫২ এএম, ২৫ মার্চ ২০১৯ সোমবার

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র ওয়াসিমকে বাসচাপা দিয়ে ‘হত্যার’ ঘটনায় ক্ষোভে রোববার উত্তাল ছিল সিলেট নগরী । 

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়সহ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস থেকে চৌহাট্টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। রাস্তায় হাজারো শিক্ষার্থীর বিক্ষোভের কারণে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে করে দিনভর চরম দুর্ভোগে ছিলেন  সিলেটবাসী।

দুপুরের পর শিক্ষার্থীরা তিন দিনের ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়ে রাস্তা থেকে সরে গেলে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়।

এর আগে রাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ, রাস্তায় অগ্নিসংযোগের পর শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ফিরে যায়। শিক্ষার্থীদের একটি অংশ বেলা ১১টার দিকে অবস্থান নেয় সিলেটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার সংলগ্ন চৌহাট্টা এলাকায়। সেখানে তারা রাস্তায় বসে ওয়াসিম আব্বাস নিহতের ঘটনায় বিক্ষোভ করতে থাকে।

দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মিছিলসহ হাজারো শিক্ষার্থী আম্বরখানা হয়ে চৌহাট্টায় আসে। তারা চৌহাট্টা চত্বরে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। এতে করে জিন্দাবাজার থেকে আম্বরখানা এবং নয়াসড়ক থেকে রিকাবীবাজার পর্যন্ত রাস্তা বন্ধ হয়ে পড়ে। ওই সব সড়কে কয়েক শ যানবাহন আটকা পড়ে।

বিক্ষোভকালে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সিলেটের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। 

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে সাবেক অর্থমন্ত্রীর একাত্মতা প্রকাশ 
দুপুর ১২টার দিকে চৌহাট্টা এলাকা দিয়ে আবু সিনা ছাত্রাবাসে যাওয়ার সময় ছাত্র বিক্ষোভের মুখে পড়েন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। শিক্ষার্থীরা তার গাড়িও আটকে দেয়। পরে মুহিত সহ আওয়ামী লীগ নেতারা এসে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন।
এ সময় বক্তব্য রাখেন আবুল মাল আবদুল মুহিত ও সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী। আবুল মাল আবদুল মুহিত শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বলেন, ওয়াসিমকে খুন করা হয়েছে। 

বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, দুর্ঘটনার মামলা নয়, দুর্ঘটনার মামলাকে হত্যা মামলায় নিতে হবে, তিনদিনের মধ্যে মামলার বিচার প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে, এ তিনদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণাও দেওয়া হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীরা ওয়াসিম হত্যার প্রতিবাদে বাসচালক ও তার সহকারীকে আইনের আওতায় এনে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ফাসি কার্যকর, ঘাতক ‘উদার’ পরিবহন বাসের রুট পারমিট ও লাইসেন্স বাতিলের দাবি জানান।

এছাড়া নিরাপদ সড়কের দাবিতে তারা কোন ফিটনেসবিহীন গাড়ী রাস্তায় চলতে পারবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন।

এ দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীরাও একই সময় ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করে চালক ও সহকারীর সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড ও সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার দাবি জানান।

প্রসঙ্গত, শনিবার সন্ধ্যায় শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা সিলেট মহাসড়কের শেরপুর নামক স্থানে বাসচাপায় প্রাণ হারান সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের ৪র্থ বর্ষের ছাত্র ওয়াসিম। তিনি হবিগঞ্জে নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের রুদ্র গ্রামের মো. আবু জাহেদ মাহবুব ও ডা. মীনা পারভিন দম্পতির একমাত্র সন্তান।


সিকৃবিতে শোক দিবস পালন

বায়োটেকনোলজি ও জেনেটিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ৪র্থ বর্ষের মেধাবী ছাত্র ওয়াসিম আব্বাসের মৃত্যুতে সিকৃবিতে রোববার শোক দিবস পালন করা হয়েছে। এ কারণে গতকাল সিকৃবিতে কোনো ক্লাস, পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। 
এ ছাড়াও পূর্বনির্ধারিত বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতিনির্ধারণী একাডেমিক কাউন্সিলের সভাও স্থগিত করা হয়। দুপুরে ওয়াসিম আব্বাস এর স্মরণে শোক সভা, মানববন্ধন ও আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়ার আয়োজন করা হয় বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগ। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নূর হোসেন মিঞা’র সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক প্রফেসর ড. জীতেন্দ্র নাথ অধীকারীর সঞ্চালনায় শোক সভায় বক্তব্য রাখেন- সিকৃবির ভিসি প্রফেসর ড. মো. মতিয়ার রহমান হাওলাদার, ডিন কাউন্সিলের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মো. আবুল কাশেম, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. বদরুল ইসলাম শোয়েব, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা পরিচালক  প্রফেসর ড. সৈয়দ সায়েম উদ্দিন আহম্মদ, পোস্ট-গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নজরুল ইসলাম, অফিসার পরিষদের সভাপতি কৃষিবিদ মো. সাজিদুল ইসলাম, গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. মিটু চৌধুরী, সাদা দলের সভাপতি প্রফেসর ড. এম. রাশেদ হাসনাত, লেপস্‌ এর সভাপতি সরকার মো. ইব্রাহিম খলিল, সহকারী প্রফেসর মো. নাজমুল হোসাইন, কর্মচারী সমিতির সভাপতি শাহ্‌ আলম সুরুক প্রমুখ। শোক সভায় বক্তারা ওয়াসিম আব্বাস এর আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে দোয়ার আয়োজন করা হয়।