SylhetNews24.com

বঙ্গবন্ধুর একক নেতৃত্বেই

বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে: শাবি ভিসি

সিলেট নিউজ ২৪

প্রকাশিত : ০৫:৫৮ পিএম, ২৪ আগস্ট ২০১৭ বৃহস্পতিবার

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মিনি অডিটোরিয়ামে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিতে¦ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. সৈয়দ সামসুল আলম, সাধারণ সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক মুহিবুল আলম।

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক প্রফেসর ড. মো. রাশেদ তালুকদার, সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মো. কবির হোসেন, প্রফেসর ড. মো. আখতারুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইউনুছ, এগ্রিকালচার এন্ড মিনারেল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. এ জেড এম মঞ্জুর রশীদ, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. আব্দুল গণি, প্রফেসর ড. আব্দুল আউয়াল বিশ্বাস, প্রফেসর ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, প্রফেসর. ড. মস্তাবুর রহমান, প্রফেসর আমেনা পারভীন, প্রফেসর ড. এ এইচ এম বেলায়েত হোসেন, প্রফেসর ড. মো. ফারুকউদ্দীন, প্রক্টর মো. জহির উদ্দীন আহমদ, অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ মুর্শেদ আহমেদ, সহয়াক কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান সিরাজ, কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. গিয়াসউদ্দীন, শাবি ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। আলোচনা সভায় সঞ্চালনা করেন রেজিস্ট্রার ইশফাকুল হোসেন।

১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের নেতৃত্ব নিয়ে বিতর্কের কিছুৃ নেই উল্লেক করে শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর একক নেতৃত্বেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে বাংলাদেশকে একশো বছর পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর বিশ্বাসপ্রবণতা ও ভালবাসার সুযোগ নিয়ে কিছু বিপথগামী সেনা কর্মকর্তা খন্দকার মুশতাকের সাথে হাত মিলিয়ে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে।

উপাচার্য বলেন, ‘১৫ ই আগস্টের মত ভয়াল কালো রাত যাতে বাঙ্গালীর জীবনে আর না আসে সেজন্য আমাদেরকে সর্বদা সতর্ক থাকতে হবে।’

শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণায় উন্নয়ন ছাড়া আমাদের আর কোন এজেন্ডা নেই। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে আন্তরিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।’
অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের নিহত সদস্যদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় সকলে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন।