SylhetNews24.com

সেই একই অডিটোরিয়াম : নাম পরিবর্তন করা হচ্ছে বারবার

সিলেটনিউজ২৪.কম

প্রকাশিত : ০৩:০০ পিএম, ৩ এপ্রিল ২০১৫ শুক্রবার | আপডেট: ০৩:২০ পিএম, ৪ এপ্রিল ২০১৫ শনিবার

সেই একই অডিটোরিয়াম।রিকাবীবাজারের সিলেট অডিটোরিয়াম থেকে বিএনপি সরকারের আমলে সংস্কার করে নামকরন করা হয় এম.সাইফুর রহমান অডিটোরিয়াম।

কিন্তু ২০০৯ সালে আওয়ামীলগ ক্ষমতায় এসে এই নাম পছন্দ হয়নি।পরিবর্তন করে আবার রাখা হয় সিলেট অডিটোরিয়াম- কিন্তু কি এক অজ্ঞাত  কারনে আবার নাম পরিবর্তন করে নামকরন করা হয়েছে কবি নজরুল অডিটোরিয়াম।

শুক্রবার বিকেলে সংস্কারকৃত কবি নজরুল অডিটোরিয়াম আনুষ্টানিকভা্বে উদ্বোধন করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, কাজী নজরুল ইসলাম সাম্যের কবি, বিদ্রোহী কবি, জনতার কবি। তার স্মরণে এবং সংস্কৃতির বিকাশে সিলেটে নজরুল অডিটোরিয়াম সংস্কার সাধন করা হয়েছে। একইসাথে মুক্তপ্রাঙ্গন নির্মাণ করা হয়েছে।

দেশের আবহমান সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিতে বর্তমান সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় সংস্কৃতির বিকাশে এরকম মুক্তমঞ্চ, মুক্তপ্রাঙ্গন নির্মাণ করা হচ্ছে, হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি আশফাক আহমদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম, সিলেট সিটি করপোরেশনের নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব প্রমুখ।

সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেটের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মঞ্চকুসুম শিমুল বিশ্বাস। পরে অর্থমন্ত্রী ও শিমুল বিশ্বাস সপ্তাহব্যাপী ‘একুশের চেতনায় নাট্যোৎসব’ উদ্বোধন করেন।
অনুষ্ঠানের শেষের দিকে কাজী নজরুলের বিভিন্ন গানের উপর নৃত্যানুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। এছাড়া সিলেটের শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন।

প্রসঙ্গত, নজরুল অডিটোরিয়ামে নতুন চেয়ার বসানো, দরজা-জানালার মেরামত, টয়লেট ব্যবস্থার উন্নতিকরণ, পুরো অডিটোরিয়ামে নতুন রঙ, নতুন দুটি গেইট নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া সংস্কৃতি কর্মীদের দাবির প্রেক্ষিতে অডিটোরিয়ামের পূর্বপাশে একটি নতুন নাট্যমঞ্চ নির্মাণ করা হয়েছে।

এসব কাজে ব্যয় হয়েছে প্রায় ২ কোটি টাকা। এছাড়া জেলা পরিষদের অর্থায়নে অডিটোরিয়ামের পাশেই দৃষ্টিনন্দন একটি মুক্তপ্রাঙ্গন নির্মাণ করা হয়েছে।