ঢাকা, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
২৫ জনকে আসামি করে আবরার হত্যার চার্জশিট:অভিযুক্তরা উচ্ছৃঙ্খল ছিল

সিলেট এমসি কলেজ ব্যাচ-৯০’র পুনর্মিলনী ৮ জানুয়ারি

প্রকাশিত: ২৮ নভেম্বর ২০১৫  

ঐতিহ্যবাহী সিলেট এমসি কলেজের `এইচএসসি ৯০ তম ব্যাচের পুনর্মিলনী` আগামী ৮ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে। এতে ওই ব্যাচের শিক্ষার্থী ছাড়াও কলেজের সাবেক ও বর্তমান অধ্যক্ষ ও অধ্যাপকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর একটি হোটেলের কনফারেন্স হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির সদস্য,প্রচার ও মিডিয়া কমিটির আহ্বায়ক জেলা বারের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর এডভোকেট শামসুল ইসলাম।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ওই দিন কলেজ প্রাঙ্গণে ২৫টি মেহগনি চারা রোপন ও ক্যাম্পাস থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালীর মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সূচনা হবে। এর বাইরে হোটেল রোজভিউয়ে আয়োজন করা হয়েছে ব্যাচ-৯০ এর পুনর্মিলনীর দিনব্যাপী অনুষ্ঠান। এছাড়াও উপস্থিত থাকবেন কলেজের প্রাক্তন ও বর্তমান প্রাজ্ঞ বিদগ্ধ অধ্যক্ষ ও অধ্যাপকগণ। সন্ধ্যায় খ্যাতিমান কণ্ঠশিল্পীদের অংশগ্রহণে পরিবেশিত হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এক প্রশ্নের জবাবে জানানো হয়, ওই  ব্যাচের মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিলেন ৩৩০ জন। এর মধ্যে ৩ জন মারা গেছেন। বাকি ৩২৭ জনের মধ্যে ২০০ জন এরই মধ্যে রেজিস্ট্রেশন করেছেন। প্রাক্তণ ছাত্রদের মধ্যে অনেকেই প্রবাসে রয়েছেন। এই বাস্তবতায় সিলেটের বাইরে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে আলাদা পুনর্মিলনী আয়োজনের উদ্যোগ  চলছে।

লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করা হয়, ঐতিহ্যবাহী সিলেট এমসি কলেজ থেকে স্বাধীনতা ও একুশে পদকপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দেওয়ান মোহাম্মদ আজরফ, জাতীয় অধ্যাপক ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার এম এ মালেক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, আমেরিকার বিখ্যাত পদার্থ বিজ্ঞানী মোহাম্মদ আতাউল করিম, মুক্তিযোদ্ধা কর্নেল আবু তাহের, বিখ্যাত ডন পত্রিকার সাংবাদিক মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন, বিখ্যাত গণিতবিদ অধ্যাপক জিতেন্দ্র কুমার ভট্টাচার্য, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুস সামাদ আজাদ, সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমান, শাহ এ এম এস কিবরিয়া, বর্তমান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সাবেক রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, সাবেক মন্ত্রী দেওয়ান ফরিদ গাজী, গণমানুষের কবি দিলওয়ার, বিখ্যাত ইতিহাসবিদ নিহার রঞ্জন রায়, বুয়েটের প্রথম উপাচার্য এম এ রশিদ, ভূটানের রাষ্ট্রদূত যিষ্ণু রায় চৌধুরীসহ অসংখ্য প্রজ্ঞাদিপ্ত ব্যক্তিরা শিক্ষা নিয়ে বের হয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-আয়োজন কমিটির মুখপাত্র আমিরুল হোসেন খান, সদস্য সচিব ব্যবসায়ী আহমেদ জিল্লুল দারা,সিলেট জেলের জেলার মাসুদ পারভেজ মঈন, কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজের প্রফেসর মো. আজাদ উদ্দিন, সিলেট টিচার্চ ইনস্টিটিউটের এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ড. দিদার চৌধুরী, স্কয়ার হসপিটালের চিকিৎসক ডা. জুবায়ের হোসেন সুফি, মদন মোহন কলেজের শিক্ষক উজ্জল দাশ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ১২৩ বছর পেরিয়ে যাওয়া কলেজটি ১৮৯২ সালে গিরীশ চন্দ্র রায় প্রতিষ্ঠা করেন। পরবর্তীতে ভারত বর্ষের শ্রেষ্ঠ কলেজ হিসেবে সুখ্যাতি লাভ করেছিলো প্রতিষ্ঠানটি।

আরও পড়ুন
খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত