ঢাকা, ১৯ জানুয়ারি, ২০২১
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
করোনার টিকা পেলেই সম্মুখসারির যোদ্ধাদের অগ্রাধিকার: প্রধানমন্ত্রী অনেকদূর এগিয়েছি সত্য,তবে যেতে হবে আরও বহুদূর:প্রধানমন্ত্রী সত্য বলায় হয়তো আমার চাকরিও থাকবে না:ওবায়দুল কাদেরের ভাই ভ্যাকসিন কবে আসবে সেটা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না: ভারতীয় হাইকমিশন টিকা নিয়ে সরকার ‘তেলেসমাতি’ খেলা শুরু করেছে:রিজভী ২৮ জন সিলেটিসহ মাত্র ৩৪ যাত্রী নিয়ে লন্ডন থেকে আসলো বিমান

বিশ্বনাথের দশঘর ইউপি নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী বিজয়ী

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০২০  

বিশ্বনাথের দশঘর ইউপি নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো: এমাদ উদ্দিন খান চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন । ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে তিনি ৩১৬৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

দীর্ঘ ১৭ বছর পর বৃহস্পতিবার বিশ্বনাথ উপজেলার দশঘর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। শতভাগ স্বচ্ছতা, সুষ্ট ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন আয়োজনের জন্য নির্বাচন কমিশনের উদ্যোগে নানান পদক্ষেপ গ্রহণ  করা হয়।

এছাড়া সিইসির ঘোষনা অনুযায়ী এই নির্বাচনেই প্রথম  ভোটের দিন সকালে ব্যালট কেন্দ্রগুলোতে প্রেরণ করা হয়। 

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে রুদ্ধশ্বাস ভোটগণনা শেষে ‘ধানের শীষ’ প্রতীক নিয়ে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এমাদ উদ্দিন খানকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। তিনি ৩ হাজার ১৬৬ ভোট পেয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ‘নৌকা’ প্রতীকের প্রার্থী জবেদুর রহমান পেয়েছেন ২ হাজার ৭৮১ ভোট। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ‘ঘোড়া’ প্রতীক নিয়ে সামছু মিয়া লয়লুছ পেয়েছেন ২ হাজার ৭৪১ ভোট।

অন্য প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীদের মধ্যে জাতীয় পার্টি মনোনীত ‘লাঙ্গল’ প্রতীকের প্রার্থী আবদুল মন্নান ১২২ এবং ‘আনারস’ প্রতীকের প্রার্থী আবুল হোসেন (বিএনপির বিদ্রোহী) পেয়েছেন ১ হাজার ৫০৬ টি ভোট।

এর আগে দীর্ঘদিন পর অনুষ্ঠিত দশঘর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট প্রদানের ক্ষেত্রে পুরুষের চেয়ে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। 

নতুন ভোটারদের পাশাপাশি নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে ভোট কেন্দ্রগুলোতে আসেন প্রবীণরা। নতুন ভোটারদের মধ্যে ছিলো প্রথম ভোট দেওয়ার আনন্দ, আর প্রবীনদের মধ্যে ছিলো অনিয়ন-দূর্নীতিকে দূর করে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচিত করার মন্ত্র।

শতভাগ স্বচ্ছতা, সুষ্ট ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন আয়োজনের জন্য নির্বাচন কমিশনের উদ্যোগে নানান পদক্ষেপ গ্রহণের পাশাপাশি ভোটের দিন সকালে কেন্দ্রগুলোতে প্রেরণ করা হয় ব্যালট। 

নির্বাচনে ভোট গ্রহন কাজে নিয়োজিত ছিলেন ১০ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৪৫ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ৮৫ জন পোলিং অফিসার।


 

আরও পড়ুন
এক্সক্লুসিভ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত