ঢাকা, ১৬ এপ্রিল, ২০২১
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ঢাকাসহ সারাদেশে বিজিবি মোতায়েন, থমথমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সুবর্ণজয়ন্তীতে ফুল ছিটানোর বদলে রাজপথে রক্ত ঝরলো:মির্জা ফখরুল কাল বিক্ষোভ, রোববার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে হেফাজত সব প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে বাংলাদেশ এখন সমৃদ্ধির পথে:প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে কেউ কখনও দাবিয়ে রাখতে পারবে না: মোদি হাটহাজারীতে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ: পুলিশ-হেফাজত সংঘর্ষ, নিহত ৪ ঢাকায় এসেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি, লাল গালিচা সংবর্ধনা

আজকের শিশুরাই একদিন সোনার বাংলা গড়বে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৬ মার্চ ২০১৯  

আজকের শিশুরাই একদিন সোনার বাংলা গড়বে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আজকের শিশুরাই আগামী দিনের প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী হবে। তারাই একদিন দেশের নেতৃত্ব দেবে।

আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে শিশু-কিশোর সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বর্ণাঢ্য এই অনুষ্ঠান। এ সময় শিশুদের পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয় বঙ্গবন্ধু কন্যাকে। পরে কুচকাওয়াজে অংশ নিতে আসা দল পরিদর্শন করতে পায়ে হেঁটে স্টেডিয়াম প্রদক্ষিণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, আজকের শিশুরাই একদিন সোনার বাংলা গড়বে। তারাই একদিন দেশের নেতৃত্ব দেবে। আজকের শিশুরাই আগামী দিনের প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী হবে। তারা দেশ পরিচালনা করবে। সেভাবেই তাদেরকে গড়ে উঠতে হবে।

দেশের মানুষ উন্নত জীবন পাবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২৪ বছরের সংগ্রাম এবং ৯ মাসের মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। দেশের মানুষ উন্নত জীবন পাবে, ক্ষুধা এবং দারিদ্রমুক্ত থাকবে-এ লক্ষ্য নিয়েই দেশ স্বাধীন হয়েছিল। এটা ছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন।’

মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস থেকে শিশু-কিশোরদের রক্ষায় অভিভাবক ও শিক্ষদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ ও মাদক সম্পর্কে আপনারা শিশুদের বোঝাবেন। আজকের শিশুরাই আগামী দিনে দেশকে এগিয়ে নিবে। তাদের এগিয়ে যেতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বর্তমান সরকারের দৃঢ়তায় এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। আর এই উন্নয়ন বজায় রাখতে আজকের শিশুকে আগামীতে হাল ধরতে হবে। আর এজন্য শিশুদের দেশপ্রেমিক ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলছে সরকার।’
 

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত