ঢাকা, ০৬ মার্চ, ২০২১
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ক্ষমতা ছেড়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ক্ষমতা দখল: প্রেসিডেন্ট ও সু চি গ্রেফতার করোনার টিকা পেলেই সম্মুখসারির যোদ্ধাদের অগ্রাধিকার: প্রধানমন্ত্রী অনেকদূর এগিয়েছি সত্য,তবে যেতে হবে আরও বহুদূর:প্রধানমন্ত্রী সত্য বলায় হয়তো আমার চাকরিও থাকবে না:ওবায়দুল কাদেরের ভাই ভ্যাকসিন কবে আসবে সেটা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না: ভারতীয় হাইকমিশন টিকা নিয়ে সরকার ‘তেলেসমাতি’ খেলা শুরু করেছে:রিজভী ২৮ জন সিলেটিসহ মাত্র ৩৪ যাত্রী নিয়ে লন্ডন থেকে আসলো বিমান

সিলেটে প্রথম টিকা নিলেন বিভাগীয় কমিশনার,ডিসি-এসপি, সাংবাদিক

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে থেকে সিলেটে আনুষ্ঠানিকভাবে করোনা ভ্যাকসিন দেয়া শুরু হয়েছে।এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টিকা প্রয়োগের মধ্য দিয়ে সিলেটে কোভিড-১৯ টিকা প্রদান শুরু হয়।

সিলেটে প্রথম টিকাগ্রহণ করেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মশিউর রহমান। টিকা গ্রহণের পর তিনি বলেন, মানসিক ও শারিরীকভাবে আমি পুরো সুস্থ আছি।

আগের চেয়ে বরং ভালো আছি। কারণ টিকা দিয়ে করোনার ভয় অনেকটা কেটে গেছে। সিলেট বিভাগের মধ্যে প্রথম টিকা নিতে পেরেও আমার ভালো লাগছে।  

তিনি বলেন, টিকা গ্রহণের পর এই মূহুর্তে আমার শরীরে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। ফলে সবাইকে দ্বিদ্বা-দ্বন্দ্ব ছাড়াই টিকা গ্রহণের আহ্বান জানাই।

বিভাগীয় কমিশনারের পর টিকা গ্রহণ করেন সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম। টিকা গ্রহণের পর তিনি বলেন, টিকা নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো সুযোগ নেই। আমি নিজেও টিকা নিলাম।ভয় পাওয়ার কারণ নেই। অপপ্রচারে কেউ কান দেবেন না। সিলেটে টিকার কোনো সঙ্কট হবে না বলেও জানান জেলা প্রশাসক।

সাংবাদিকদের মধ্যে প্রথম করোনাভাইরাসের টিকা নিয়ে সাহস যোগালেন সিলেটের সিনিয়র সাংবাদিক আল-আজাদ। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর তিনি সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে করোনার টিকা নেন।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, গণমাধ্যমকর্মীসহ সংবাদ সংশ্লিষ্টদের সাহস যোগাতেই আমি করোনার টিকা নিয়েছি। এতে ভয়ের কোন কারণ নেই। করোনা পরিস্থিতিতে নিরাপদ স্বাস্থ্যের জন্য সকলকে করোনার টিকা নেয়ার জন্য আহ্বান জানান তিনি। মানুষের জীবন রক্ষার জন্য সরকারের এই মহৎ উদ্যোগের জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীসহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

টিকাগ্রহণ করায় ভালো লাগার কথা জানালেও টিকাদান কেন্দ্রে সামাজিক দুরত্ব বজায় না রাখার অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ওসমানী মেডিকল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. নৌশিন তাসনিম। তিনি বলেন, টিকা গ্রহণের বুথগুলোতে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে না। এটা করা উচিত। ডা. তাসনিম বলেন, টিকা গ্রহণের পর আত্মবিশ্বাস অনেক বেড়ে গেছে। করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক কমে গেছে।

সকাল সাড়ে ৯টায় অনলাইনে যুক্ত হয়ে সিলেটে টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন।

পরে সকাল ১০টায়  স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশে গণ টিকাদান কার্যক্রম শুরু করেন।

সকাল ১১ টায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থাপিত টিকাদান কেন্দ্রের ১০, ১১ ও ৪ নং বুথে তিনজনের টিকাদানের মাধ্যমে সিলেটে ভ্যাক্সিনেশন কার্যক্রম শুরু হয়।


সিলেটে প্রথমদিনে আরো টিকা গ্রহণ করেন জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত সাবেক কৃতি ফুটবাল রনজিত দাশ। প্রায় নব্বই বছর বয়সী এই ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব অসুস্থতার কারণে কথা বলতে পারেন না। তবে টিকা গ্রহণের পর হাসি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন তার ভালো লাগার কথা। টিকা নিয়েছেন রনজিত দাসের স্ত্রীসহ পরিবারের সদস্যরাও।

প্রথমদিনে টিকাগ্রহণ করেছেন সিালেটের একাধিক জনপ্রতিনিধিও। সিলেট সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ইলিয়াসুর রহমান ইলিয়াস, তৌফিক বক্স লিপনসহ কয়েকজন কাউন্সিলর টিকা গ্রহণ করেন।

এসময় তারা বলেন, জনগনের মধ্য থেকে বিভ্রান্তি দূর করতে আমরা আগে টিকা নিলাম। জনপ্রতিনিধি হিসেবে মানুষকে উৎসাহিত করতেই আমরা আগে নায়েছি। টিকা গ্রহণের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

ওসমানী হাসপাতালের পাশাপাশি সিলেট বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালেও সকাল থেকে টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়। সেখানে পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিনসহ পুলিশসদস্যরা টিকা গ্রহণ করেন।

কোভিড ১৯ ভ্যাকসিন প্রদানের জন্য গঠিত সিলেট সিটি কর্পোরেশন কমিটির সভাপতি ও সিলেট সিটি করর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, আজ আমরা সফলভাবে কোভিড ১৯ এর ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম শুরু করেছি। ভ্যাকসিন নিয়ে কারো মনে ভয় সংশয় থাকার কোন কারন নেই। করোনাযুদ্ধে প্রথম সারির যোদ্ধারা এরই মধ্যে ভ্যাকসিন নিয়েছেন। আমরা তাদের কাছ থেকে উৎসাহমুলক বক্তব্য শুনেছি। ফলে সবাইকে নির্ভয়ে টিকা নেয়ার আহবান জানাচ্ছি।

আগামীকাল সোমবার থেকে থেকে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যোন্ত টিকা দান চলবে

আরও পড়ুন
এক্সক্লুসিভ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত