ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
চলতি বছরের গত ৮ মাসে সীমান্তে ৩৩ বাংলাদেশি নিহত:বিজিবি এবার সেই প্রদীপের বিরুদ্ধে বোনের সম্পত্তি জবর দখলের অভিযোগ স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়েছেন সিটি মেয়র আরিফ ও প্রধান প্রকৌশলী ভারতে ১৫`শ টন ইলিশ রপ্তানির বিশেষ অনুমতি করোনা সংক্রমণে বিশ্বে দ্বিতীয় ভারত,একদিনে আক্রান্ত সাড়ে ৯৬ হাজার করোনা: ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১,৭৯২ জন

সিলেটে আঞ্চলিক কমান্ডারসহ ৫ ‘জঙ্গি’ আটক: অভিযানে বোমা উদ্ধার

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১২ আগস্ট ২০২০  

সিলেট নগরীর টিলাগড়ের শাপলাবাগ আবাসিক ও জালালাবাদ আবাসিক এলাকার পৃথক দুটি বাসায় অভিযান চালিয়ে বোমা, বোমা তৈরির সরঞ্জাম ও জঙ্গি তৎপরতায় ব্যবহৃত কম্পিউটার উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

পুলিশের দাবি, সিলেট অঞ্চলের প্রধান নাইমুজ্জামানের নেতৃত্বে হযরত শাহজালাল (র.)-এর মাজারে হামলা চালানোর পরিকল্পনা ছিল তাদের

এর আগে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট সিলেটে অভিযান চালিয়ে নব্য জেএমবির ‘সিলেট আঞ্চলিক কমান্ডার’ নাইমুজ্জামান নাইমসহ ৫ জনকে বিভিন্ন এলাকা থেকে আটক করে। 

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টায় নগরীর জালালাবাদ আবাসিক এলাকার ৪৫/১০নং বাসার  জঙ্গি সন্দেহে আটক সাদির পিতা মুক্তিযোদ্ধা মইনুল ইসলামের বাসায় অভিযান চালায় পুলিশ। রোববার রাত থেকে পৃথক অভিযানে গ্রেপ্তার হওয়া ৫ নব্য জেএমবির দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে এ অভিযান চালানো হয়।

এসময় বাসা থেকে বোমা, বোমা তৈরির এবং কিছু কম্পিউটার সরঞ্জাম উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। উদ্ধারকৃত কম্পিউটারে বোমা তৈরির বেশকিছু ভিডিও ছিলো।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান জানান, জালালাবাদ আবাসিক এলাকার ৪৫/১০ নম্বর বাসার মুক্তিযোদ্ধা মইনুল ইসলামের বাসায় অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানের সময় আমিও উপস্থিত ছিলাম। এসময় বাসা থেকে বোমা, বোমা তৈরির এবং কিছু কম্পিউটার সরঞ্জাম উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। উদ্ধারকৃত কম্পিউটারে বোমা তৈরির বেশকিছু ভিডিও ছিলে।

এদিকে, গত দুইদিনের অভিযানে আটক ৫ 'জঙ্গি'র মধ্যে  নাইম ও সায়েমকে নিয়ে রাত সাড়ে নয়টায় নগরীর টিলাগড়ের শাপলাবাগ আবাসিক এলাকার  ৩ নম্বর রোডের ৪০/এ ‘শাহ ভিলা’ নামের বাসায় অভিযান চালিয়ে র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যরা একটি কম্পিউটার সেন্টারের সন্ধান পায়।
‘শাহ ভিলা’র মালিক শাহ মো. শামদ আলী জানিয়েছেন, নাইম ও সায়েম তার বাসার চারতলার ফ্ল্যাটটি গত দুই মাস আগে কম্পিউটার সেন্টার বানানোর জন্য ভাড়া নিয়েছে। কিন্তু তারা সেখানে অবস্থান করেন না।
তবে সিলেট কতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মিঞা এ অভিযানের বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন।

সর্বশেষ এই দুই স্থানে অভিযান শেষে গ্রেপ্তারকৃত ৫ জঙ্গিকে নিয়ে মঙ্গলবার রাতেই ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয় পুলিশ।

ডিসি মো. ওয়ালিদ হোসেন জানান, সিলেট থেকে যে নব্য জেএমবির পাঁচ সদস্য গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তারা পল্টনে বোমা বিস্ফোরণে ঘটনাতেও জড়িত ছিল।

তবে জঙ্গি সদস্যদের আটকের ব্যাপারে কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (গণমাধ্যম) জ্যোর্তিময় সরকার।

উল্লেখ্য, গত রোববার (৯ আগস্ট) থেকে সিলেট নগরী এবং আশেপাশের কয়েকটি এলাকায় জঙ্গি ধরতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। ইতোমধ্যে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ বা নব্য জেএমবির পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট (সিটিটিসি)।

জানা গেছে, সিলেট নগরীর মিরাবাজার উদ্দীপন-৫১ নম্বর বাসা থেকে গেল রবিবার রাতে নাইমুজ্জামান নাইমকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি নব্য জেএমবির ‘সিলেট আঞ্চলিক কমান্ডার’ বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে। 

নাইমের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার ভোরে পৃথক দুটি অভিযানে গ্রেফতার করা হয় আরও চারজনকে। তন্মধ্যে জালালাবাদ আবাসিক এলাকা থেকে সানাউল ইসলাম সাদীকে গ্রেফতার করে সিটিটিসি। এছাড়া টুকেরবাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় তিনজনকে। নাইম ও সাদী শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। ছিলেন। গ্রেফতারকৃত বাকি তিনজনের মধ্যে দুজন কলেজ শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।

এই পাঁচ ‘জঙ্গি’ সিলেটে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজারে হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে। এই পাঁচজনের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে সিলেট নগরীতে অভিযানে চালিয়েছে পুলিশ ও র‌্যাব।

আরও পড়ুন
এক্সক্লুসিভ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত