ঢাকা, ২৫ জুন, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে ইইউ প্রতিনিধিদলের উদ্বেগ পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ জারদারি গ্রেফতার ৪০ লাখ ঘুষ: দুদক পরিচালক এনামুল বাসির সাময়িক বরখাস্ত ওসি মোয়াজ্জেমকে খুঁজেই পাচ্ছে না পুলিশ!

সালাম দিয়ে পার্লামেন্টে বক্তব্য নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ১৯ মার্চ ২০১৯  

ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হামলাকারীর নাম কখনো উচ্চারণ না করার পণ করেছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডর্ন।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) নিউজিল্যান্ডের পার্লামেন্টে দেওয়া এক আবেগঘন বক্তব্যে তিনি বলেন, সে তার সন্ত্রাসী কার্যক্রমের মাধ্যমে অনেক কিছু চেয়েছে। এর মধ্যে একটি হচ্ছে পরিচিতি। এজন্যই আপনারা কখনোই আমাকে তার নাম উচ্চারণ করতে শুনবেন না।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে এক অস্ট্রেলিয়ান বংশোদ্ভূত বন্দুকধারীর সন্ত্রাসী হামলায় ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ৪৮ জন।

ওই হামলাকারীর নাম ব্রেন্টন ট্যারান্ট। সে নিজেকে শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী হিসেবে দাবি করে। তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আপাতত সে ২০ দিনের রিমান্ডে আছে।

সালাম দিয়ে বক্তব্য শুরু আরডর্নের
মঙ্গলবার সালাম দিয়ে পার্লামেন্টে নিজের বক্তব্য শুরু করেন জাসিন্ডা আরডর্ন। তিনি বলেন, আমি আপনাদের অনুনয় করছি, হামলাকারীর নাম না বলে, হামলায় যারা প্রাণ হারিয়েছে তাদের নাম বলুন। সে একজন সন্ত্রাসী। সে একজন অপরাধী। সে একজন চরমপন্থি। আমার বক্তব্য তার কোনো নাম থাকবে না।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্য আইনপ্রণেতাদের নিশ্চিত করেন যে, হামলাকারী আইনের সর্বোচ্চ শাস্তির সম্মুখীন হবে। তিনি সকল নিউজিল্যান্ডবাসীকে আগামী শুক্রবার মুসলিম সম্প্রদায়ের শোককে স্বীকৃতি জানানোর আহ্বান জানান।

আরডর্ন ইতোমধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন যে, নিউজিল্যান্ডের অস্ত্র বিষয়ক আইনে পরিবর্তন আনা হবে। এছাড়া তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোকে এ ধরণের সন্ত্রাসবাদিতা মোকাবিলার আহ্বান জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, নিজের হামলা ফেসবুকে প্রচার করেছিল ক্রাইস্টচার্চ হামলাকারী।
তিনি বলেন, আমরা চুপচাপ এই প্ল্যাটফর্মগুলোর অস্তিত্ব ও এগুলোতে যা প্রকাশ হচ্ছে তা মেনে নিতে পারি না।
এগুলোতে যা প্রকাশ হচ্ছে তা এই প্ল্যাটফর্মগুলোর দায়িত্বের অধীনে পড়ে। তারা এসবের প্রকাশন। কেবল ‘পোস্টম্যান’ না। এটা দায়িত্ববোধ ছাড়া কেবল লাভের বিষয় হতে পারে না।

ফেসবুক যা বলেছে
ফেসবুক মঙ্গলবার জানিয়েছে, হামলাকারী হামলাটি সরাসরি সম্প্রচার করার সময় সেটি ২০০’রও কম ব্যবহারকারী দেখেছে। এছাড়া পরবর্তীতে সব মিলিয়ে প্রায় ৪ হাজার বার দেখা হয়েছে। এরপর ভিডিওটি যোগাযোগ মাধ্যম থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি আরও বলেছে, তারা হামলার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভিডিওটির ১৫ লাখ কপি সরিয়ে নিয়েছে। এছাড়া আরও ১২ লাখ কপি আপলোড করার আগেই ব্লক করে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন
প্রবাসের সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত