ঢাকা, ২৬ আগস্ট, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ব্রেকিং নিউজ--বরগুনায় রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

সাম্বার ছন্দে সৌন্দর্যের ঝংকারে ব্রাজিলের বাজিমাত, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ান হয়ে শেষ ষোলতে

খালেদ আহমদ *

প্রকাশিত: ২৭ জুন ২০১৮  

> ২ জুলাই সামারায় বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মেক্সিকোর মুখোমুখি হবে ব্রাজিল*

রাশিয়া বিশ্বকাপে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ান হয়েই শেষ ষোলতে নাম লিখাল সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ান ব্রাজিল। আজ নেইমার-কুতিনহো-পাওলিনহোদের পায়ে ফুটল ফুটবলের শৈল্পিক ফুল। ব্রাজিল খেলেছে ব্রাজিলের মতো! সাম্বার ছন্দে, সৌন্দর্যের ঝংকারে। আর সেটিও সাফল্যের সঙ্গে আপস না করে।

ফুটবল এমনই। সর্বশেষ বিশ্বকাপে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনাকে কান্নায় ভাসিয়ে শিরোপা উৎসব করে জার্মানরা। আর এবার জার্মানদের কান্নাভেজা রাতে জয় নিয়ে সমর্থকদের উল্লাসে মাতালো ব্রাজিল।

ল্যাতিন ছন্দের কাছে পরাভূত হলো ইউরোপের পাওয়ার ফুটবল! আর না বললেও চলে, পাত্তাই পেল না সার্বিয়া। তাদের ২-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নকআউট পর্বে উঠে গেল ৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।ন্যূনতম ড্র হলেই দ্বিতীয় রাউন্ডে পা রাখবে ব্রাজিল। তবে জিততেই হবে সার্বিয়াকে। এমন সমীকরণ নিয়ে মস্কোর স্পার্তাক স্টেডিয়ামে খেলতে নামেন নেইমাররা।

আক্রমণাত্মক সূচনা করেন তারা। সূচনালগ্ন থেকেই তাদের পায়ে দেখা যায় ছন্দের পসরা। একের এক আক্রমণে সার্বিয়াকে ব্যতিব্যস্ত রাখেন তারা।

যদিও সুযোগ আসে একটু বিলম্বে। খেলার ২৫ মিনিটের মাথায় সুযোগ পায় ব্রাজিল। গোলপোস্ট বরাবর বাঁ পায়ে শট নেন নেইমার। তবে প্রাণভোমরার জোরালো শট অসামান্য দক্ষতায় রুখে দেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক ভ্লাদিমির স্টোজকোভিচ। পরেও আক্রমণের গতি সচল রাখে ব্রাজিল। ফলে সাফল্যও আসে। ৩৬ মিনিটে নিশানাভেদ করেন পাওলিনহো। তবে এ গোলের রূপকার ছিলেন কুতিনহো। থ্রুটা ছিল এ মিডফিল্ডারেরই। পরে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকলেও আর গোলমুখ খুলতে পারেননি ব্রাজিলিয়ানরা। ফলে ১-০তে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যান তারা।

বিরতি থেকে ফিরে ঝটিকা আক্রমণ শুরু করে সার্বিয়া। ব্রাজিলকে ঠেসে ধরে দলটি। মুহুর্মুহু আক্রমণে প্রতিপক্ষ শিবিরে ত্রাস ছড়ান সার্বিয়ানরা। এ অর্ধে গোলও পেতে পারতেন তারা। তবে ৫৫ ও ৬৩ মিনিটে ভাগ্য সহায় না হওয়ায় গোল পাননি। সার্জেই মিলিনকোভিচের দুটি শট দারুণ দক্ষতায় সেভ করেন অ্যালিসন।

সার্বিয়ার আক্রমণে খেলা জমে ওঠে। একরকম গেমই ওপেন হয়ে যায়। ফলে পাল্টা আক্রমণে উঠার সুযোগ পায় ব্রাজিল। তার সদ্ব্যবহার করতে মোটেও ভুল করেননি ২০০২ চ্যাম্পিয়নরা। ৬৮ মিনিটে দুর্দান্ত হেডে ঠিকানায় বল পাঠান থিয়াগো সিলভা। তিনি গোল করলেও এর কারিগর ছিলেন নেইমার।

১৯৭০ বিশ্বকাপ থেকে এ নিয়ে টানা ১৩বার গ্রুপপর্ব টপকে নকআউট পর্বে উঠল লাতিন দলটি। এ নিয়ে শেষ ১০টি বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বেই তাঁরা চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে উঠল নকআউট পর্বে। এবার শেষ ষোলোর লড়াইয়ে তিতের শিষ্যদের প্রতিপক্ষ মেক্সিকো।

২ জুলাই সামারায় বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মেক্সিকোর মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে তিতের শিষ্যরা ছন্দে ফেরার আভাস দেওয়ায় ব্রাজিল সমর্থকেরা কিন্তু এখনই কোয়ার্টার ফাইনাল দেখতে পাচ্ছেন। মস্কোয় আজ ‘সেলেসাও’ সমর্থকদের জয়োল্লাসে স্লোগান ছিল, ‘বাই বাই মেক্সিকো!’

আরও পড়ুন
বাণিজ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত