ঢাকা, ২৬ আগস্ট, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ব্রেকিং নিউজ--বরগুনায় রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

র‌্যাবের এডিশনাল ডিজির দায়িত্ব নিলেন সিলেটের কর্ণেল তোফায়েল

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৩০ জুন ২০১৯  

র‌্যাবের নতুন অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস্) হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করছেন সিলেটের কৃতি সন্তান কর্ণেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার। 

শনিবার র‌্যাব সদরদফতর থেকে এই তথ্য জানানো হয়।সদর দফতরের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইংয়ের উপ-পরিচালক মেজর হুসাইন রইসুল আজম মনি এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং থেকে জানানো হয়, কর্ণেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার ২৯ জুন শনিবারেই র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস্) এর দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। তিনি কর্ণেল মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের স্থলাভিষিক্ত হন।

কর্ণেল তোফায়েল ডেপুটি কন্টিনজেন্ট কমান্ডার ব্যানব্যাট-৫, মালী (MINUSMA) জাতিসংঘ মিশনে সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালন শেষে সদ্য পদোন্নতিপ্রাপ্ত হয়ে প্রেষণে র‌্যাব ফোর্সেসে যোগদান করেন।

কর্ণেল তোফায়েলের জন্ম তার সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ফতেহপুর গ্রামে। বেড়ে উঠেছেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি জাফলং পাংথুমাই আর খাসিয়া-জৈন্তিয়া পাহাড়ের সৌন্দর্য দেখতে দেখতে। গ্রামের স্কুলে প্রাথমিক শিক্ষা শেষে ভর্তি হন সিলেট সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে পরে বিখ্যাত এমসি কলেজে। সেখান থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যোগদেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে। দীর্ঘ চাকরী জীবনে সততা ও কর্মনিষ্ঠতার স্বাক্ষর রেখেই চলেছেন তিনি।

তার প্রতিভা ও দক্ষতার স্বীকৃতি হিসাবে সরকার তাকে অ্যালিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হিসাবে নিয়োগ দিয়েছেন।

কর্ণেল তোফায়েল ১৯৯৪ সালের ১৯ ডিসেম্বর ৩১তম বিএমএ লং কোর্সের সাথে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পদাতিক কোরে কমিশন লাভ করেন। তিনি সেনাবাহিনীর বিভিন্ন ইউনিট ও সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ পদসহ একটি পদাতিক ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক এর দায়িত্ব পালন করেন। তিনি একটি পদাতিক ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া ডিজিএফআই সদর দফতর, জিএসও-১ এবং একটি পদাতিক ব্রিগেডে জিএসও-২ (ইন্ট) এর দায়িত্ব পালন করেন।

সেনাবাহিনীর বিভিন্ন গোয়েন্দা ইউনিট ও সংস্থায় গুরুত্বপূর্ণ পদে দীর্ঘ ১১ বছরের চাকুরির অভিজ্ঞতা রয়েছে এই কর্মকর্তার। তিনি পার্বত্য চট্টগ্রামে অবৈধ অস্ত্র ও মাদক বিরোধী অভিযানে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। তিনি ব্যানব্যাট-৪, লাইবেরিয়া (UNMIL) এবং ব্যানব্যাট-৫, মালী (MINUSMA) জাতিসংঘ মিশনে কর্মরত ছিলেন।

কর্ণেল তোফায়েল দেশ ও বিদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে গোয়েন্দা কোর্স এবং জার্মান থেকে জাতিসংঘ মিলিটারি অবজারভার কোর্স সম্পন্ন করেন। এছাড়া তিনি সিয়েরা লিওন, ইউকে, ফ্রান্স, ইতালি, বেলজিয়াম, আইভোরিকোস্ট, মালয়েশিয়া, হল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ভারত এবং ইউএসএ হতে প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য সরকারী কর্তব্য পালন করতে গিয়েছিলেন।

কর্ণেল তোফায়েল ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড এন্ড ষ্টাফ কলেজ (ডিএসসিএসসি), মিরপুর থেকে আর্মি ষ্টাফ কোর্স, পিএসসি ডিগ্রী লাভ করেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) থেকে মাষ্টার্স ইন ডিফেন্স ষ্ট্যাডিস ডিগ্রী লাভ করেন।

তিনি সেনাবাহিনীর বিভিন্ন পরিসরের কমান্ড ও ষ্টাফ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন চৌকস অফিসার। চাকুরি ক্ষেত্রে পারদর্শিতা ও উৎকর্ষতার জন্য তিনি ২ বার সেনাবাহিনী প্রধানের প্রশংসাপত্র প্রাপ্ত হন। তিনি কর্মক্ষেত্রে অত্যন্ত সততা, পেশাদারিত্ব, বিচক্ষণতার সাথে দায়িত্ব পালন করে সুনাম অর্জন করে আস

আরও পড়ুন
এক্সক্লুসিভ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত