ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি, ২০২০
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
সীমান্তে অবৈধভাবে গরু আনতে গিয়ে নিহত হলে তার দায় নেবে না সরকার রাজধানীর সিটিং সার্ভিস হচ্ছে চিটিং সার্ভিস....কাদের দিরাই সড়কে পিকআপ চাপায় আমেরিকা প্রবাসীসহ ২জন নিহত মাধবপুরে ২ জনকে হত্যা, দুর্ঘটনার নাটক সাজায় লালমাটিয়ায় এসকে সিনহাকে ‘মাজায় দড়ি’ লাগিয়ে টেনে দেশে আনা হবে:মোজাম্মেল হক নিখুঁত ও স্বচ্ছতার সাথে জনশুমারি করতে হবে:পরিকল্পনামন্ত্রী হাইকোর্টে জামিন চাইলেন প্রথম আলোর সম্পাদক এসএসসি পরীক্ষা ৩ ফেব্রুয়ারি,সংশোধিত রুটিন প্রকাশ ইভটিজিং ও নিরাপত্তা নিশ্চিত হলে বাল্যবিবাহ রোধ ও শিক্ষা বাড়বে মৌলভীবাজারে বাগানে ৪ জনকে কুপিয়ে হত্যার পর ঘাতকের আত্মহত্যা ভারতের নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের প্রয়োজন ছিল না:প্রধানমন্ত্রী হাসিনা শিক্ষা বানিজ্যের প্রতিবাদে সিলেট ল কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ‘প্রথম আলো’র সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণ: আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি সিলেটে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১ ‘হাইকোর্টের আদেশ মেনে আন্দোলন থেকে বিরত থাকুন’....কাদের দক্ষিণ সুরমায় ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ১ খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিতের বিষয়ে যা বললেন অ্যাটর্নি জেনারেল রিট খারিজ,৩০ জানুয়ারিই হবে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন মুজিববর্ষ উদযাপনে মহাপরিকল্পনা,বছরজুড়ে দেশ-বিদেশে ২৯৮টি অনুষ্ঠান

রোহিঙ্গাদের ‘সেফ জোন’ তৈরিতে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা কামনা

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ এপ্রিল ২০১৯  

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক চাপ প্রয়োগ ও মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠনগুলোর তদারকিতে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের জন্য ‘সেফ জোন’ তৈরিতে যুক্তরাষ্ট্রের সহয়তা চেয়েছে বাংলাদেশ।

পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. এ কে আব্দুল মোমেন সোমবার ওয়াশিংটনে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সাথে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। খবর ইউএনবির

দুই দেশের দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নিজ নিজ দপ্তর পাওয়ার পর এটাই তাদের মধ্যেকার প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

ওয়াশিংটনের বাংলাদেশ দূতাবাসের দেয়া তথ্য অনুসারে, বৈঠকে আলোচিত হওয়া অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে ছিল- যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত বঙ্গবন্ধুর খুনিকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনা, মুক্ত ও উন্মুক্তভাবে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল নিয়ে মতবিনিময়, বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ, বাংলাদেশের পোশাক শিল্প যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে শুল্ক ও কোটামুক্ত প্রবেশ এবং দু’দেশের বিভিন্ন অংশদারিত্ব বিষয়ক খাত।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন যুক্তরাষ্ট্রকে জানান, জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা ও সহয়তাকারী সংস্থার সমন্বয়ে বাংলাদেশ নিজস্ব অর্থায়নে এক লাখ রোহিঙ্গাকে স্থানান্তরের জন্য ভাষানচর দ্বীপকে বসবাস উপযোগী করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশকে আশ্বস্ত করে বলেন, বাংলাদেশে আসা মিয়ানমারের ১০ লাখেরও বেশি বাস্তুচ্যুত নাগরিককে কোনো ধরনের ভীতি ও অত্যাচার ছাড়া অবশ্যই মিয়ানমারে ফেরত যেতে হবে।

উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করা মিয়ানমার সরকার ও সামরিক বাহিনীর দায়িত্ব উল্লেখ করে পম্পেও বলেন, যাতে করে তারা (রোহিঙ্গারা) সেখানে ফিরতে (মিয়ানমারে) নিরাপদ বোধ করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশকে পূর্ণ আশ্বাস দিয়ে বলেন, রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের পাশে (রাজনৈতিক ও অর্থনৈতি উভয়ভাবে) থাকবে।

এসময় নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের সাময়িকভাবে আশ্রয় দিয়ে মানবিকতার পরিচয় দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশাংসা করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

আরও পড়ুন
প্রবাসের সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত