ঢাকা, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
করোনায় আরো ৩২ জনের মৃত্যু ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ফরিদুল হক খান ভারতীয় ‘ক্রাইম পেট্রোল’ দেখে ভাই-ভাবিসহ ৪ জনকে হত্যা সুনামগঞ্জ পৌর পানি শোধনাগার উদ্বোধন করলেন পরিকল্পনামন্ত্রী জগন্নাথপুর বিবি এডুকেশন ট্রাস্টের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত করিম

রায়হান হত্যার প্রধান অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য আকবর ৭ দিনের রিমান্ডে

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০২০  

বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নিহত রায়হান হত্যার প্রধান অভিযুক্ত এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে (সাময়িক বরখাস্ত) ৭ (সাত) দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

(মঙ্গলবার) দুপুর ১টা ২০ মিনিটে কঠোর পুলিশী পাহারায় পিবিআই তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আওলাদ হোসেন সিলেট চিফ মেট্রোপলিটন আদালতের বিচারক আবুল কাশেমের আদালতে হাজির করেন এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে। এসময় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন।

শুনানী শেষে ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এব্যাপারে পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক আওলাদ হোসেন বলেন, ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালতের বিচারক। রায়হান হত্যার মূল রহস্য উদঘাটনের জন্য আকবরকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পিবিআই। সেই সাথে তার সহযোগীদের সম্পর্কেও তথ্য আদায় করতে চেষ্টা করবে পিবিআই। 

জানা যায়, সোমবার (১০ নভেম্বর) সকালে কানাইঘাটের ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে খাসিয়াদের সহযোগীতায় আকবরকে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয় জেলা পুলিশ । পরে রাত ৭টার দিকে আকবরকে পিবিআই কাছে হস্তান্তর করেছে জেলা 

প্রসঙ্গত, গত ১০ অক্টোবর দিবাগত রাত তিনটার দিকে রায়হানকে কতোয়ালি থানার বন্দরবাজার ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে নির্যাতন করা হয়। নির্যাতনে রায়হান মারা যান।

এ ঘটনায় তাঁর স্ত্রী তাহমিনা আক্তার পরদিন হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে মামলা করেন। মামলায় আসামির নাম উল্লেখ করা হয়নি। মামলার পর মহানগর পুলিশের একটি অনুসন্ধান কমিটি তদন্ত করে ওই ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন সহ চারজনকে সাময়িক বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করে। আকবর ১৩ অক্টোবর থেকে পলাতক আছেন।

রায়হান হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত এএসআই আশেক এলাহীকে ৫ দিনের এবং কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাশ ও হারুনুর রশীদকে দুই দফায় ৮ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পিবিআই। এছাড়া, আকবরকে পালাতে সহযোগিতা করায় বন্দরবাজার ফাঁড়ির টুআইসি এস আই হাসানকেও বরখাস্ত করা হয়।

রায়হান নগরীর একটি রোগ নির্ণয় কেন্দ্রে চাকরি করতেন। তিনি স্ত্রী, আড়াই মাস বয়সী এক মেয়ে ও মাসহ আখালিয়ার নিহারিপাড়ায় বসবাস করতেন। পুলিশ হেফাজতে তাঁর মৃত্যুর ঘটনায় 'বৃহত্তর আখালিয়া সংগ্রাম পরিষদ' নামে এলাকাবাসীর সম্মিলিত মোর্চা প্রতিবাদ কর্মসূচি নিয়ে মাঠে তৎপর। এসআই আকবরসহ জড়িত সবাইকে গ্রেফতারের দাবিতে আন্দোলন চলছে।

আরও পড়ুন
এক্সক্লুসিভ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত