ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
হাইকোর্টে জামিন চাইলেন প্রথম আলোর সম্পাদক এসএসসি পরীক্ষা ৩ ফেব্রুয়ারি,সংশোধিত রুটিন প্রকাশ ইভটিজিং ও নিরাপত্তা নিশ্চিত হলে বাল্যবিবাহ রোধ ও শিক্ষা বাড়বে মৌলভীবাজারে বাগানে ৪ জনকে কুপিয়ে হত্যার পর ঘাতকের আত্মহত্যা ভারতের নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের প্রয়োজন ছিল না:প্রধানমন্ত্রী হাসিনা শিক্ষা বানিজ্যের প্রতিবাদে সিলেট ল কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ‘প্রথম আলো’র সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণ: আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি সিলেটে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১ ‘হাইকোর্টের আদেশ মেনে আন্দোলন থেকে বিরত থাকুন’....কাদের দক্ষিণ সুরমায় ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ১ খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিতের বিষয়ে যা বললেন অ্যাটর্নি জেনারেল রিট খারিজ,৩০ জানুয়ারিই হবে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন মুজিববর্ষ উদযাপনে মহাপরিকল্পনা,বছরজুড়ে দেশ-বিদেশে ২৯৮টি অনুষ্ঠান

বিদ্যুতের ঝুলে থাকা তার আর খুঁটিবিহীন অপরূপ সিলেট

খালেদ আহমদ

প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহিত

ছবি: সংগৃহিত

দেশের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় সিলেট সুপরিচিত চা-বাগান, পাহাড় টিলা এবং ওলি-আউলিয়ার মাজারের শহর হিসেবে। প্রতিদিন দেশ বিদেশ থেকে বিপুল সংখ্যক মানুষ বেড়াতেও আসেন এই ।

কিন্তু হঠাৎ করেই ভিন্ন একটি বিষয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনায় এসেছে এই নগরী। পরিপাটি, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন সড়ক। মাথার উপরে নেই কোনো ‘জঞ্জাল’। মনোরম এমন পরিবেশ, এমন দৃশ্য দেখা যায় উন্নত দেশে। সেই একই দৃশ্য এখন দেখা যাচ্ছে সিলেটে। মনোরম এই দৃশ্য দেখতে প্রতিদিন রাতে অসংখ্য মানুষ এই সড়কে ভীড় জমাচ্ছেন,সেল্ফি তুলছেন।

কারণ ডিজিটাল স্মার্ট প্রকল্পের অধীনে সিলেটই হতে যাচ্ছে বাংলাদেশে প্রথম ঝুলে থাকা তার আর বৈদ্যুতিক খুঁটিবিহীন নগরী।

ইতোমধ্যে হজরত শাহজালাল (রহ.) দরগা গেইট এলাকার সড়ক থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে সব তারের জঞ্জাল ও বিদ্যুতের খুঁটি।

ফলে পুরো এলাকাটি পেয়েছে একটি ভিন্নরূপ, বলছেন নগরের অধিবাসীরা।

দেশের প্রথম ভূগর্ভস্থ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন চালু হয়েছে সিলেটে। গত সোমবার দরগার প্রধান ফটকের সড়কে এ ভূগর্ভস্থ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন চালু করা হয়। পর্যায়ক্রমে সিলেট নগরীর অন্যান্য এলাকায় ভূগর্ভস্থ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

মেয়র জানান, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে ও সিলেট সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে সিলেট নগরীতে একটি পাইলট প্রকল্প চলমান। এর আওতায় নগরীর ইলেকট্রিক সাপ্লাই এলাকার বিদ্যুৎ সাবস্টেশন থেকে ভূগর্ভস্থ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন আম্বরখানা হয়ে চৌহাট্টায় যাবে। চৌহাট্টা থেকে আরেকটি লাইন যাবে জিন্দাবাজার-কোর্টপয়েন্ট হয়ে সিলেট সার্কিট হাউজে। এছাড়া চৌহাট্টা থেকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পর্যন্ত যাবে আরেকটি লাইন।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরী বিবিসিকে বলছেন, পাইলট প্রকল্পের অধীনে দরগা গেইট থেকে আম্বরখানা সড়ক সহ দরগা এলাকা থেকে সব বিদ্যুতের খুঁটি সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

"পুরো এলাকা এখন দৃষ্টিনন্দন রূপ পেয়েছে। পর্যায়ক্রমে পুরো শহর থেকে তার আর খুঁটি সরিয়ে নেয়া হবে। বিদ্যুতসহ সব পরিষেবার লাইন নেয়া হবে মাটির নিচ দিয়ে। এ কার্যক্রম এখন চলমান রয়েছে"।

তিনি বলেন মাজার এলাকায় কাজ শেষ হয়েছে এবং বাকী কাজ চলছে। বিদ্যুৎ বিভাগ তাদের খুঁটি ও তার সরিয়ে মাটির নীচে প্রতিস্থাপন করছে আর সিটি কর্পোরেশন তাতে সহযোগিতা করছে বলছে জানান তিনি।

সিলেটের সাংবাদিক আহমেদ নূর বিবিসি বাংলাকে বলছেন, কর্তৃপক্ষ যে পরিকল্পনা নিয়েছে তাতে মাজার এলাকা, আম্বরখানা থেকে বন্দর বাজার, জিন্দাবাজার থেকে চৌহাট্রা পর্যন্ত আবার চৌহাট্রা থেকে বাগবাড়ী এবং শাহজালাল উপশহরের কয়েকটি ব্লক এ প্রকল্পের আওতায় খুঁটি ও তারমুক্ত করার কাজ চলছে।

তিনি বলেন পূর্ব দরগা গেইট থেকে শাহজালাল মাজার পর্যন্ত - পুরো মাজার এলাকা হয়ে কোর্ট পয়েন্ট পর্যন্ত সড়ক খুঁটি ও তারমুক্ত হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন
এক্সক্লুসিভ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত