ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ব্রেকিং নিউজ--বরগুনায় রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

বউ-শাশুড়ির মধ্যে খিটিমিটি : বিচ্ছেদের গুঞ্জন অভিষেক-ঐশ্বরিয়ার

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬ মে ২০১৪  

হৃতিক-সুজানের বিচ্ছেদের পর সম্প্রতি ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও অভিষেক বচ্চনের দাম্পত্য জীবনের টানাপোড়েনের খবরে তোলপাড় উঠেছে বলিউডে।

এমনকি বলিউডের অন্যতম সুখী এ তারকা দম্পতির বিচ্ছেদের গুঞ্জনও ছড়িয়েছে। এই ঘটনায় যার পর নাই ক্ষুব্ধ বলিউডের প্রভাবশালী বচ্চন পরিবারের ছেলে অভিষেক। এ প্রসঙ্গে এক টুইটার বার্তায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন জুনিয়র বচ্চন।

অভিষেক তাঁর টুইটার বার্তায় লিখেছেন, ‘ঠিক আছে...আমি বিশ্বাস করলাম আমি দাম্পত্য জীবনের ইতি টানতে যাচ্ছি। ধন্যবাদ আমাকে এই বিষয়টি জানানোর জন্য। আমি কবে দ্বিতীয় বিয়ে করব সেটা কি দয়া করে জানাবেন আপনারা? ধন্যবাদ। # যতসব বোকার দল।’ সম্প্রতি এক খবরে এমনটিই জানিয়েছে ওয়ান ইন্ডিয়া।

বেশ কিছুদিন ধরেই শাশুড়ি জয়া বচ্চনের সঙ্গে ঐশ্বরিয়ার মন-কষাকষির গুঞ্জন চলছে বলিউডে। জয়া-ঐশ্বরিয়ার দ্বন্দ্বের খবর প্রথম চাউর হয়েছিল গত বছরের নভেম্বরে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে দাবি করা হয়, ঐশ্বরিয়ার পারিবারিক ও ব্যক্তিগত নানা বিষয়ে জয়ার নিয়মিত হস্তক্ষেপের বিষয়টি ঠিক হজম করতে পারছেন না অ্যাশ।


এমনকি অ্যাশের পেশাগত নানা বিষয়েও নাক গলান জয়া। এসব কারণে বউ-শাশুড়ির মধ্যে খিটিমিটি বেঁধেছে। তাঁদের মধ্যে মন-কষাকষি শুরু হয়েছে। এজন্য বচ্চনদের বাড়ি ছেড়ে স্বামী অভিষেক ও একমাত্র মেয়ে আরাধ্য বচ্চনকে নিয়ে আলাদাভাবে সংসার পাতার পরিকল্পনা করছেন ঐশ্বরিয়া। অবশ্য বচ্চন পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টিকে স্রেফ গুজব বলেই দাবি করা হয়।

জয়া-ঐশ্বরিয়া ফের খবরের শিরোনাম হন চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে। ওই মাসের শুরুর দিকে বলিউডের তারকা দম্পতি ধর্মেন্দ্র-হেমা মালিনীর মেয়ে নৃত্যশিল্পী অহনা দেওলের বিয়ের অনুষ্ঠানে একে অন্যকে এড়িয়ে চলেন জয়া-ঐশ্বরিয়া। এর পরিপ্রেক্ষিতে অনেকেই মন্তব্য করেন, দিনকে দিন বেড়েই চলেছে জয়া-ঐশ্বরিয়ার দ্বন্দ্ব।

এ ছাড়া ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে ভারতের প্রভাবশালী আম্বানি পরিবারের এক সদস্যের জন্মদিন উদযাপন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পান বচ্চন পরিবারের সদস্যেরা। সেখানেও জয়া ও ঐশ্বরিয়া একে অন্যকে এড়িয়ে চলেন। একপর্যায়ে কাছাকাছি এলেও পাশ কাটিয়ে যেতে দেখা যায় তাঁদের।

বউ-শাশুড়ির এই দ্বন্দ্বের কারণে সম্প্রতি বলিউডে খবর চাউর হয়, অভিষেক-ঐশ্বরিয়ার দাম্পত্য জীবন ভালো যাচ্ছে না। জয়ার সঙ্গে অ্যাশের দ্বন্দ্ব এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, দাম্পত্য জীবনের ইতি টানার পরিকল্পনা করছেন অভিষেক ও ঐশ্বরিয়া।

স্বামী অভিষেক ও একমাত্র মেয়ে আরাধ্যর সঙ্গে ঐশ্বরিয়া

প্রসঙ্গত, ২০০৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘উমরাও জান’ ছবিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন অভিষেক-ঐশ্বরিয়া। এই জুটির বাস্তব জীবনের ভালোবাসার গল্পের শুরুটাও হয়েছিল সেই ছবির সেটে। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে সাবেক বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বরিয়ায় মুগ্ধ হন অভিষেক। ২০০৭ সালের জানুয়ারি মাসে অভিষেক-ঐশ্বরিয়া জুটির ‘গুরু’ ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর প্রিয়তমাকে সারা জীবনের সঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব দেন অভিষেক। তাঁর বিয়ের প্রস্তাবে সানন্দেই ইতিবাচক সাড়া দেন ঐশ্বরিয়া।

২০০৭ সালের ২০ এপ্রিল হিন্দু রীতি অনুযায়ী অভিষেক-ঐশ্বরিয়ার বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। তারা ঝলমলে সেই বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল জুহুতে বচ্চনদের প্রতীক্ষা বাসভবনে। ২০১১ সালের ১৬ নভেম্বর একমাত্র মেয়ে আরাধ্য বচ্চনের জন্ম দেন ঐশ্বরিয়া। মা হওয়ার পর থেকে অভিনয় ছেড়ে বেশির ভাগ সময় আরাধ্যর পেছনেই ব্যয় করছেন ৪০ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী ও সাবেক বিশ্বসুন্দরী।

সাত বছরের দাম্পত্য জীবনে বলিউডের অন্যতম সুখী তারকা দম্পতি হিসেবে নিজেদের প্রমাণ করেছেন অভিষেক ও ঐশ্বরিয়া। বলিউডের তারকাদের মধ্যে সুখী দাম্পত্যের উদাহরণ খুব কমই আছে। পরকীয়া, মনের অমিল কিংবা আরও নানা তুচ্ছ কারণে তারকাদের বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটছে হরহামেশাই। কিন্তু এ ক্ষেত্রে বিরল দৃষ্টান্তই স্থাপন করেছেন অভিষেক-ঐশ্বরিয়া। পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ, বিশ্বাস আর ভালোবাসায় ভর করে এগিয়ে চলেছে অভিষেক-ঐশ্বরিয়ার সুখী দাম্পত্য জীবন। গত এপ্রিলে ঘটা করে সপ্তম বিবাহবার্ষিকী উদযাপন করেন তাঁরা।

কিন্তু সম্প্রতি এই তারকা দম্পতির বিচ্ছেদের গুঞ্জনে বেশ শঙ্কার মধ্যেই আছেন তাঁদের ভক্তরা। পাছে আবার তাঁদের প্রিয় দুই তারকার বিচ্ছেদের গুঞ্জন সত্যে পরিণত না হয়! কারণ শুরুর দিকে হূতিক রোশনও বিচ্ছেদের গুঞ্জনকে অস্বীকার করেছিলেন। কিন্তু পরে সত্যি সত্যিই দাম্পত্যের ইতি টানেন হূতিক-সুজান। অভিষেক-অ্যাশের ক্ষেত্রে এমনটা ঘটবে না—এই প্রত্যাশাই সবার।

আরও পড়ুন
বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত