ঢাকা, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
২৫ জনকে আসামি করে আবরার হত্যার চার্জশিট:অভিযুক্তরা উচ্ছৃঙ্খল ছিল

নিউজিল্যান্ডেই দাফন সিলেটের হোসনে আরা ও ড. সামাদের

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০১৯  

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ৫ বাংলাদেশীর লাশ শনাক্ত হয়েছে।

দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের অনারারি কনসাল ইঞ্জিনিয়ার শফিকুর রহমান ভূঁইয়া স্থানীয় সূত্রের বরাতে  রোববার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন। টেলিফোনে বলেন, ঘটনার পর থেকে নরসিংদীর বাসিন্দা জাকারিয়া ভুঁইয়া নিখোঁজ ছিলেন।

তার পূর্ব পরিচিত স্থানীয় একটি মসজিদের ইমাম তার লাশ শনাক্ত করেছেন। ফলে বেসরকারীভাবে বাংলাদেশী মৃতের সংখ্যা এখন ৫-এ দাঁড়ালো। নরসিংদীর জাকারিয়া প্রায় ১৮ মাস আগে সিঙ্গাপুর থেকে নিউজিল্যান্ডে যান।

কনসাল শফিক জানান, হামলার পরপরই শনাক্ত হওয়া নিহত বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. আব্দুস সামাদ ও সিলেটের ফরিদ আহমেদের স্ত্রী হোসনে আরা আহমেদের লাশ নিউজিল্যান্ডেই দাফন-কাফনের আবেদন করেছেন দেশটিতে থাকা তাদের ঘনিষ্ঠ স্বজনরা। 
এ সংক্রান্ত নির্ধারিত ফর্মও তারা পূরণ করে কর্তৃপক্ষ বরাবর জমা দিয়েছেন। ফলে তারা নিউজিল্যান্ডেই সমাহিত হবেন। 

এদিকে বেসরকারীভাবে রোববার শনাক্ত হওয়া নারায়ণগঞ্জের মো. ওমর ফারুক ও চাঁদপুরের মোজাম্মেল হক এবং নরসিংদীর জাকারিয়া ভুঁইয়ার লাশ দেশে আনা হবে কি-না, সেই সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি।

কনসাল জানান, দেশটিতে তাদের কোন স্বজন নেই যারা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিতে পারেন। ফলে তাদের সিদ্ধান্ত পাওয়ার অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে। 

নিহত ব্যক্তিদের স্ত্রী, সন্তান, পিতা বা মাতা অথবা ঘনিষ্ঠ কাউকে নিউজিল্যান্ডে নেয়া হতে পারে। অথবা তারা মিশনের মাধ্যমে তাদের এ সংক্রান্ত মতামত দিতে পারেন। পুরো বিষয়টি নিয়ে দুই সরকারের মধ্যে আলাপ-আলোচনা চলছে।
তবে এটা নিশ্চিত যে স্বজনহারা পরিবারগুলোর মতামত প্রাপ্তির পরই তাদের লাশ দেশে পাঠানো বা নিউজিল্যান্ডে দাফনের সিদ্ধান্ত হবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ক্যানবেরা মিশন এবং নিউজিল্যান্ডের (অনারারী) কনস্যুলেটের তথ্য অনুযায়ী, ওই ঘটনায় আহতদের মধ্যে লিপির অবস্থা সংকটাপন্ন। তার আরেকটি অস্ত্রোপচার করা লাগতে পারে। কিশোরগঞ্জের বাসিন্দা লিপিকে দেখতে রোববার হাসপাতালে গেছেন নিউজিল্যন্ডের প্রধানমন্ত্রী  জাসিন্দর আরদেরন। তিনি তার চিকিৎসার সার্বিক খোঁজ-খবর নিয়েছেন বলেও জানা গেছে। 

ওদিকে পয়ে গুলিবিদ্ধ গাজিপুরের মুতাসসিম ও শেখ হাসান রুবেলের অবস্থা বিপদমুক্ত।

গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে নৃশংস হামলায় ওই বাংলাদেশীসহ ৫০ জন নিহত ও ৪৮ জন আহত হন। হামলার পর আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

শনিবার পর্যন্ত নিহতদের মরদেহ মসজিদে রাখা হয়। নিউজিল্যান্ড কর্তৃপক্ষ নিহতদের মোট সংখ্যা নিশ্চিত করেছে। তবে তারা এখনও নিহতদের জাতীয়তা ও আহতদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানায়নি। কর্মকর্তাদের মতে, শিগগিরই তাদের বিচার বিভাগ এসব ঘোষণা করবে।সূত্র:-মানবজমিন

আরও পড়ুন
প্রবাসের সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত