ঢাকা, ২৬ আগস্ট, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ব্রেকিং নিউজ--বরগুনায় রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

‘ডিম হামলার’ পর ভিসির বাসভবনের সামনে নুরদের অবস্থান

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২ এপ্রিল ২০১৯  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হল সংসদের স্বতন্ত্র ভিপি প্রার্থীকে মেরে রক্তাক্ত করার ঘটনার বিচার চেয়ে প্রাধ্যক্ষ বরাবর অভিযোগ দিতে এসে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুরসহ অন্যরা ‘ডিম হামলার’ শিকার হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটে। 

ভিপি নুর অভিযোগ করেছেন, হল শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের লক্ষ্য করে ডিম নিক্ষেপ করে। প্রাধ্যক্ষের কার্যালয়ে তাকে প্রায় দুই ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এস এম হল ছাত্রলীগের সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেল। 

অন্যদিকে হামলার পর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছেন ভিপি নুর ও তার সমর্থকরা। সেখানে তিনি রাতের মধ্যেই পুলিশ ডেকে প্রত্যেক হলের বহিরাগত ও অছাত্রদের বের করা এবং এসএম হলের হামলার বিচার দাবি করেন। যতক্ষণ দাবি আদায় না হবে ততক্ষণ সেখানে বসে থাকবেন বলে জানান তিনি।

তার সঙ্গে ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন, স্বতন্ত্র ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশেদ খান, ফারুক হাসানসহ আরও অনেকে অবস্থান নিয়েছেন।

সেখানে ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, বিভিন্ন সময় ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়েছে। কিন্তু এ বিষয়ে প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। প্রশাসনের এক প্রকার নীরব সম্মতি ছিলো। যার ফলে ছাত্রলীগ দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফরিদকে রক্তাক্ত করা এবং এর বিচারের দাবিতে অভিযোগ দিতে গেলে আমাদের ওপর দুই দফায় হামলা হয়।

নুর বলেন, আজকে রাতের মধ্যে পুলিশ ডেকে প্রত্যেক হলের বহিরাগত ও অছাত্রদের বের করতে হবে। আর আমাদের ওপর যে হামলা হয়েছে তার বিচার করতে হবে। নয়তো আমরা এখানে সারারাত বসে থাকবো। 

রাশেদ খান বলেন, নুর, আখতার, ইমি ও বেনজিরের ওপর হামলা ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং বিচারের দাবিতে আমরা ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছি।

এ বিষয়ে শামসুন নাহার হল সংসদের ভিপি শেখ তাসনিম আফরোজ ইমি বলেন, তারা শুধু আমার পিঠে ডিম ছুঁড়েনি, গায়েও হাত দিয়েছে। এ ঘটনার বিচার হতে হবে। ইমি বলেন, আমরা যারা প্রভোস্টের কাছে স্মারকলিপি দিতে গিয়েছিলাম তাদের ওপর হামলা করা হয়েছে।

তবে নুরদের ওপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এস এম হল ছাত্রলীগের সভাপতি তাহসান আহ্‌মেদ রাসেল। তিনি বলেন, ফরিদের ওপর হামলার অভিযোগটি মিথ্যা। সে মাদকসেবী। এজন্য প্রসাশন তাকে হল থেকে বের করে দিয়েছে। সন্ধ্যায় নুররা ফরিদের ওপর হামলার বিষয়ে  প্রাধ্যক্ষ বরাবর অভিযোগ দিতে আসে। এ সময় তাদের আমরা চলে যেতে বলি। এরপরও তারা না গেলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের হল থেকে তাড়িয়ে দেয়। 

উল্লেখ, মঙ্গলবার এস এম হল প্রাধ্যক্ষ বরাবর অভিযোগ দায়ের শেষে বের হওয়ার সময় হামলার শিকার হন ভিপি নুর ও তার সঙ্গীরা।

আরও পড়ুন
শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত