ঢাকা, ২০ মার্চ, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ফলোআপ: অভাবের যাতনা ও ক্ষোভে বীর মুক্তিযোদ্ধা জলফে আলীর আত্বহত্যা! রাঙ্গামাটিতে ভোট শেষে ফেরার পথে গুলি:নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮ জন জিয়া ভোটের রাজনীতি ধ্বংস করেছেন: প্রধানমন্ত্রী নৌকা আর বিদ্রোহী মিলে সিলেট জেলার ১২ উপজেলাই আ`লীগের নিউজিল্যান্ডেই দাফন সিলেটের হোসনে আরা ও ড. সামাদের মসজিদে হামলাকারীকে আটকানো পাকিস্তানি ‘নায়কের’ মৃত্যু সুনামগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে মুক্তিযোদ্ধার রহস্যজনক মৃত্যু খাদ্যমন্ত্রীর জামাইয়ের রহস্যজনক মৃত্যু, পরিবারের দাবি ‘হত্যা’ ফের ডাকসু পুনর্নির্বাচনের দাবি জানালেন ভিপি নুর বিশ্বব্যাপী প্রশংসায় ভাসছেন সেই কিশোর, আরও ডিম কেনার তহবিল গঠন

ডাকসুর পুনঃ তফসিলের দাবিতে পাঁচ শিক্ষার্থীর আমরণ অনশন

প্রকাশিত: ১২ মার্চ ২০১৯  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন বাতিল করে পুনঃ তফসিলের দাবিতে অনশনে বসেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ শিক্ষার্থী। একই সঙ্গে নতুন করে তফসিল ঘোষণার আগে উপাচার্য, প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তার পদত্যাগের দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টায় সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশনে বসেন চার শিক্ষার্থী। পরে রাত আটটার দিকে তাঁদের সঙ্গে আরও একজন যোগ দেন।

অনশনে বসা শিক্ষার্থীরা হলেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের তাওহীদ তানজিম, দর্শন বিভাগের বিভাগের তৃতীয় বর্ষের অনিন্দ্য মণ্ডল, পপুলেশন সায়েন্সের দ্বিতীয় বর্ষের মঈন উদ্দীন, পদার্থবিজ্ঞানের দ্বিতীয় বর্ষের শোয়েব মাহমুদ এবং ভুগোল ও পরিবেশবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রনি হোসেন।

শিক্ষার্থীদের মধ্যে রনি হোসেন ছাড়া বাকিরা ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনে প্রগতিশীল ছাত্রঐক্য ও স্বতন্ত্র জোটের সমর্থনে বিভিন্ন পদের প্রার্থী ছিলেন।

অনশনের সময় তাঁদের পাশে রাখা তিনটি প্ল্যাকার্ডে লেখা, ‘একটা ফেয়ার ইলেকশনের জন্য...’ ‘আমরণ অনশন...’ ও ‘শিক্ষকদের ভোট ডাকাতি এই লজ্জা কোথায় রাখি?’

অনশনকারীরা জানান, যতক্ষণ পর্যন্ত তাঁদের দাবি না মানা হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত তাঁরা অনশন চালিয়ে যাবেন। অনশনকারীদের পক্ষে তাওহীদ তানজিম সাংবাদিকদের  বলেন, ‘অনেক আশা নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলাম। কিন্তু ভোটের লাইনে ইচ্ছাকৃতভাবে দীর্ঘ সময় ধরে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেছি প্রভাবশালীদের। যত উপায়ে সম্ভব, ঠিক সেভাবেই নির্বাচনকে অরাজক করেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এগুলো সহ্য করার মতো নয়। সে পরিপ্রেক্ষিত থেকে অনশনে বসা।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) পদে নুরুল হক ও সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে গোলাম রাব্বানী নির্বাচিত হয়েছেন। সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও ডাকসুর সভাপতি মো. আখতারুজ্জামান এই ফলাফল ঘোষণা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে এই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত ফলাফল অনুসারে সহসাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে জয়ী হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। ডাকসুর ২৫ পদের মধ্যে ২৩টিতেই ছাত্রলীগের প্রার্থীরা নির্বাচিত হন। সমাজসেবা সম্পাদক পদে নির্বাচিত হন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্রার্থী আখতার হোসেন।

ভিপি পদে বিজয়ী নুরুল হক কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ থেকে নির্বাচন করেন। অন্যদিকে জিএস পদে নির্বাচিত গোলাম রাব্বানী বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক।

ঘোষিত ফলাফল অনুসারে ২৫ হাজারের কিছু বেশি ভোট প্রয়োগ হয়েছে। যা মোট ভোটারের ৫৯ শতাংশ। ভিপি পদে নুরুল হক পান ১১ হাজার ৬২ ভোট। এই নির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ছিল ৪৩ হাজার ২৫৫ জন। এদিকে এই ফলাফল ঘোষণার পরপরই সেখানে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। তাঁরা ভিপি পদে জয়ী নুরুল হকের বিরুদ্ধে নানা স্লোগান দেন। তাঁকে বহিষ্কারের দাবি তোলেন।

আরও পড়ুন
শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত