ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
সীমান্তে অবৈধভাবে গরু আনতে গিয়ে নিহত হলে তার দায় নেবে না সরকার রাজধানীর সিটিং সার্ভিস হচ্ছে চিটিং সার্ভিস....কাদের দিরাই সড়কে পিকআপ চাপায় আমেরিকা প্রবাসীসহ ২জন নিহত মাধবপুরে ২ জনকে হত্যা, দুর্ঘটনার নাটক সাজায় লালমাটিয়ায় এসকে সিনহাকে ‘মাজায় দড়ি’ লাগিয়ে টেনে দেশে আনা হবে:মোজাম্মেল হক নিখুঁত ও স্বচ্ছতার সাথে জনশুমারি করতে হবে:পরিকল্পনামন্ত্রী হাইকোর্টে জামিন চাইলেন প্রথম আলোর সম্পাদক এসএসসি পরীক্ষা ৩ ফেব্রুয়ারি,সংশোধিত রুটিন প্রকাশ ইভটিজিং ও নিরাপত্তা নিশ্চিত হলে বাল্যবিবাহ রোধ ও শিক্ষা বাড়বে মৌলভীবাজারে বাগানে ৪ জনকে কুপিয়ে হত্যার পর ঘাতকের আত্মহত্যা ভারতের নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের প্রয়োজন ছিল না:প্রধানমন্ত্রী হাসিনা শিক্ষা বানিজ্যের প্রতিবাদে সিলেট ল কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ‘প্রথম আলো’র সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণ: আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি সিলেটে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১ ‘হাইকোর্টের আদেশ মেনে আন্দোলন থেকে বিরত থাকুন’....কাদের দক্ষিণ সুরমায় ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ১ খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিতের বিষয়ে যা বললেন অ্যাটর্নি জেনারেল রিট খারিজ,৩০ জানুয়ারিই হবে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন মুজিববর্ষ উদযাপনে মহাপরিকল্পনা,বছরজুড়ে দেশ-বিদেশে ২৯৮টি অনুষ্ঠান

জুমেনাকে বাঁচাতে সহযোগিতা প্রয়োজন

শাবুল আহমেদ, বিয়ানীবাজার

প্রকাশিত: ৮ মে ২০১১  



জুমেনা ইয়াছমিন। বয়স ৮। সাধারণত যে বয়সে সহপাঠীদের সাথে খেলাধুলায় মত্ত থাকার কথা সে বয়সে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে আছে এই শিশুটি। জুমেনা ঠিক জানে না তার কী হয়েছে কেবল এইটুকু জানে ধীরে ধীরে শরীরে শক্তি কমে যাচ্ছে। আগের মতো সহপাঠীদের সাথে খেলাধুলা করতে পারে না,একটু হাঁটলেই নিঃশ্বাস বন্ধ হবার উপক্রম হয়।  
জুমেনার বাড়ি বিয়ানীবাজার উপজেলার লাউতা ইউনিয়নের ঠিকরপাড়া গ্রামে। দুই ভাইবোনের মধ্যে সে ছোট। ঠিকরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীতে অধ্যায়নত এই শিশুটি দীর্ঘদিন ধরে কঠিন রোগে ভুগছে। তার হার্টের একটি বাল্ব অনেক আগেই সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে গেছে পাশপাশি হৃদযন্ত্রও স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে না। বর্তমানে সে দেশের বিশিষ্ট চিকিৎসক প্রফেসর (্এ্যামরিটার্স) ডা. সুফিয়া রহমান এর তত্ত্বাবধানে রয়েছে।

শিশুটিকে এই কঠিন রোগ থেকে সর্ম্পণূভাবে সুস্থ্য করে তুলতে প্রয়োজন প্রায় চার লক্ষ টাকা। ডাক্তার সুফিয়া রহমান শিশুটির পরিবারের অসহায় অবস্থা শুনে প্রথম থেকে সহযোগিতা করে আসছেন। কেবল তাই নয় চিকিৎসা ব্যয়ের মোট টাকার অর্ধেক তিনি নিজে বহন করার দায়িত্বও নিয়েছেন।

কিন্তু এই অর্ধেক টাকাটুকুও বহন করার কোনো সামর্থ নেই শিশুটির পরিবারে। যা ছিল ইতিমধ্যে ব্যয় হয়ে গেছে। সহায়-সম্বলহীন এই শিশুটির মা সাফিয়া বেগম ও পিতা জাকির হোসেন সমাজের বিত্তশালীদের সহযোগিতা কামনা করেছেন। তাঁদের বিশ্বাস সবার সহযোগিতা পেলে জুমেনা আবারও স্কুলে যাবে আবার সহপাঠীদের সাথে খেলতে পারবে।

আরও পড়ুন
মুক্তিযুদ্ধ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত