ঢাকা, ২৬ আগস্ট, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ব্রেকিং নিউজ--বরগুনায় রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

জুনে স্বামী-সন্তানসহ দেশে ফেরার কথা ছিল হুসনে আরার

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০১৯  

অসুস্থ স্বামী ফরিদ উদ্দিন হুইলচেয়ারে চলাফেরা করায় ২০০৯ সালে পাঁচ বছর বয়সী একমাত্র কন্যা শিপাকে নিয়ে দেশে এসেছিলেন হুসনে আরা।

স্বামীর বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথের উত্তর মিরেরচরে এবং বাবার বাড়ি গোলাপগঞ্জের জাঙ্গালহাটা গ্রামে কিছুদিন থেকে আবারও নিউজিল্যান্ডে চলে যান। বর্তমানে শিপার বয়স ১৩। আগামী জুনে স্বামী-সন্তানসহ দেশে ফেরার কথা ছিল হুসনে আরার।

মাসখানেক আগে দেশে অবস্থানরত ভাতিজা নজরুল ইসলামকেও জানিয়েছিলেন বিষয়টি। কিন্তু তার আর দেশে আসা হলো না। শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে আল নূর মসজিদে বন্দুকধারীর গুলিতে প্রাণ হারান হুসনে আরা।

এদিকে হুসনে আরার গ্রামের বাড়িতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। গতকাল বাদ জোহর গ্রামের মসজিদে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।

ভাতিজা নজরুল ইসলাম বলেন, চাচির সঙ্গে ফোনে যখনই কথা হতো তিনি বাড়ির সবার কথা জিজ্ঞেস করতেন, প্রত্যেকের খোঁজখবর নিতেন এবং নামাজ পড়া হয়েছে কি-না জানতে চাইতেন।

হুসনে আরার লাশ দেশে আনা হবে কি-না- এমন প্রশ্নে নজরুল জানান, ২০০৫ সালে নিউজিল্যান্ডে গিয়ে তার আরেক চাচা সাবেক এডিসি নুর উদ্দিন হৃদরোগে মারা যান। তার লাশ দেশে আনা সম্ভব হয়নি। আর চাচির লাশ এখনও সে দেশের হাসপাতালে রাখা আছে। দেশে আনা হবে কি-না তা এখনও জানানো হয়নি।

শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদের নারী এবাদতখানায় ছিলেন হুসনে আরা। তার স্বামী ছিলেন পুরুষ এবাদতখানায়। গুলির শব্দ শুনে পক্ষাঘাতগ্রস্ত স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারান তিনি।

আরও পড়ুন
প্রবাসের সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত