ঢাকা, ০১ এপ্রিল, ২০২০
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ইতালি থেকে আসা ১৪২ জনের কারো করোনাভাইরাসের কোনো উপসর্গ নেই করোনাভাইরাস: শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে সিদ্ধান্ত সময়মতো নেয়া হবে আখাউড়ায় ইতালি ফেরত ৩ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টাইনে ইউরোপকে করোনাভাইরাস মহামারির কেন্দ্রস্থল ঘোষণা সিলেটের যেসব স্থানে ফ্রি ওয়াইফাই জোন উপসর্গ দেখা গেলে না লুকিয়ে ডাক্তার দেখানো পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন দেশে থাকা বাংলাদেশিদের এই মুহুর্তে দেশে না আসার অনুরোধ গণফোরামের নতুন কমিটি নেই সুব্রত-মন্টু সিলেটে ভোক্তা অধিকার দিবসের অনুষ্ঠান স্থগিত করোনাভাইরাসে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ন মুজিববর্ষের ক্রিকেট ও কনসার্ট স্থগিত সিলেটে অধিক দামে মাক্স বিক্রির দায়ে ৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে থাকবেন মোদি ওসমানী বিমানবন্দরে বসানো হয়েছে ‘থার্মাল স্ক্যানার’ ১৭ মার্চ জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্র প্রবাসে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের খোঁজ রাখা হচ্ছে: ইমরান আহমদ ওসমানীনগরে স্ত্রীর অপকর্ম দেখে ফেলায় স্বামীকে শ্বাসরোধে হত্যা সিলেট আদালতে ৫৫ মামলার আলামত ধ্বংস বড় জনসমাবেশ বা গ্যাদারিং এড়িয়ে চলার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর মোদির বাংলাদেশ সফর বাতিল মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়েসহ নিহত ৬ সিলেটে মাস্কের বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ দেশে ৩ করোনা রোগী শনাক্ত সিলেটে বঙ্গবন্ধুর স্নেহধন্য ৬ নারীকে সম্মাননা দিয়েছে আ.লীগ নারী দিবসে সিসিকের শোভাযাত্রা কোনো ব্যাংকের শেয়ার দর বাড়েনি মানবিক বিবেচনায় খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন: বোন সেলিমা সুনামগঞ্জ বড়ধই বিলে প্রতিপক্ষের হাতে যুবক খুন ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ: বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা মুজিব বর্ষ: করোনার প্রভাবে অতিথিরা এখনো সফর বাতিল করেননি করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩ হাজার ২০২ তরুণ প্রজন্মকে উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ট্রাকচাপায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত তাহিরপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন দুদকের মামলায় সাবেক এমপি আউয়াল স্ত্রীসহ কারাগারে ছাত্রলীগ নেতা রাকিব হত্যা মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত সৌ‌দিতে ক‌রোনায় আক্রান্ত একজন সনাক্ত ছাত্রলীগের দুই নেতাকর্মী হত্যার ঘটনায় রাবিতে বিক্ষোভ র‌্যাব ও বিজিবির সঙ্গে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৮ মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে বাড়তি ব্যয় না করার নির্দেশ বন্ধুদের মধ্যে কিলিং হওয়া ঠিক না...., শ্রিংলাকে মোমেন সাগর রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন:২ খুনীর ডিএনএ শনাক্ত পিরোজপুরে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা সিলেটে যাত্রা শুরু করছে গ্র্যান্ড প্যালেস স্ত্রীকে হত্যার পর থানায় গিয়ে স্বামী আত্মসমর্পণ সিলেটের গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রেকর্ড রানে জিতলো বাংলাদেশ অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান পাবেন মোদি.... পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাইভেটকারের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নিহত ৫ সিলেটে স্বাধীনতার মাসকে স্বাগত জানিয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দীন ইয়াসিন চার জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩ বিয়ের দাওয়াত খেতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬ খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সিলেটে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যু অনিয়ম করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না....প্রধানমন্ত্রী ভাষা সৈনিকদের রাষ্ট্রীয় সম্মান-সম্মানী দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে রিট সিলেটের যেসব এলাকায় শনিবার বিদ্যুৎ থাকবে না বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র.... নাহিদ আগামী প্রজন্মের ভাগ্য শিক্ষকদের ওপর নির্ভর করে....প্রধানমন্ত্রী লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের খবর গুজব....বাংলাদেশ ব্যাংক শনিবার সিলেট চেম্বারে ফ্রি হাড় চেকআপ ক্যাম্পেইন ছাত্রীকে আপত্তিকর ছবি পাঠিয়ে শিক্ষক বহিষ্কার নগরীতে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা নিয়ে সচেতনতামূলক কার্যক্রম জুতা পালিশ থেকে ‘ইন্ডিয়ান আইডল’ চ্যাম্পিয়ন প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই পাপিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে....কাদের ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক জাতীয় দিবস ঘোষণার নির্দেশ হাইকোর্টের বিকল্প ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত খুঁটি না সরানোর অনুরোধ আইএসপির পাগলা কুকুরের কামড়ে আহত ২০ আজ পিলখানা ট্র্যাজেডি দিবস জুলাইয়ে শুরু হচ্ছে ঢাকা-সিলেট ৬ লেন সড়কের কাজ পদত্যাগ করেছেন মাহাথির সিলেটে দ্বিতীয় বিয়ে করতে গিয়ে শ্রীঘরে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী পারিবারিক কলহের জের ধরে আত্মহত্যা করেছেন সালমান শাহ....পিবিআই বর্তমান সরকার চিকিৎসা সেবাকে গুরুত্ব দিয়েছে....মাহমুদ উস-সামাদ জগন্নাথপুরে মেয়র প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ শুরু ট্রাকচাপায় তিন অটোরিকশাযাত্রী নিহত সিলেটে ছিনতাইকৃত প্রাইভেটকারসহ ছিনতাইকারী আটক শেখ হাসিনার প্রশংসায় পঞ্চমুখ অ্যাঞ্জেলিনা জোলি আজীবনের জন্য যুবমহিলা লীগ থেকে পাপিয়া বহিষ্কার করোনাভাইরাসে উহানে আরেক চিকিৎসকের মৃত্যু মাশরাফিকে অধিনায়ক করে ওয়ানডে দল ঘোষণা ট্রাম্পের প্রশংসা পেয়ে আয়ুষ্মান যা বললেন সিলেটের ব্যবসায়ীদের সৃষ্টিশীল মনোভাবের অভাব রয়েছে সিলেটে আটক শিবির ক্যাডারের দেয়া তথ্যে অস্ত্র উদ্ধার সিলেটের সাংবাদিকরা অতীতের গৌরবোজ্জ্বল পথ ধরে রেখেছে ২১ বছর জাতির পিতার নাম মুছে ফেলা হয়েছিল....প্রধানমন্ত্রী মার্চে আসছে ২০০ টাকার নোট পারিবারিক কলহের জেরে স্বামীর ছুড়িকাঘাতে স্ত্রী খুন সিলেটে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ জৈন্তায় আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৫ ডাকাত আটক ইতিহাস ইতিহাসই, তা কেউ মুছে ফেলতে পারে না.... প্রধানমন্ত্রী পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘গোলাগুলিতে’ ২ ডাকাতের মৃত্যু রাস্তার কাজে অনিয়মের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলায় ৫ সাংবাদিক আহত সারা বিশ্বে ৭৫ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত চীন থেকে ফল আমদানি নিরুৎসাহিত করছে সরকার মুনসীফ আলীর বিরুদ্ধে ৮৪ হাজার কোটি টাকার মানহানি মামলার হুমকি সুরমা মার্কেট থেকে ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার সিলেট যুবদলের ১৮ ইউনিটে ৬ সাংগঠনিক কমিটি গঠন জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন বেগম খালেদা জিয়া কচুরিপানা নিয়ে গবেষণা করতে বলেছি, খেতে নয়: পরিকল্পনামন্ত্রী ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক চোরাকারবারি নিহত করোনাভাইরাসে উহান হাসপাতাল প্রধানের মৃত্যু রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চলে গেলেন ভারতীয় অভিনেতা তাপস পাল নাহিদ সম্পাদিত ‘জয় বাংলা’র মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী একই দিনে চট্টগ্রাম সিটি-যশোর-বগুড়ার ভোট ক্ষমা চে‌য়ে আবেদন করলে বিবেচনা করবে সরকার....স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জগন্নাথপুরে ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত সাবেক এমপি রহমত আলী আর নেই রংপুর মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে ভর্তি এক চীনা নাগরিক স্ত্রীকে ঘরে তুলেই ব্যাংক কর্মকর্তার আত্মহত্যা বৃষ্টিতে মাঠে গড়ালো না জাহানারাদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচ বিশ্বনাথে গাঁজাসহ আটক ১ মৃতের সংখ্যা ১৫২৩, গুরুতর অবস্থা ১১ হাজারৎ বিদায়ী সপ্তাহে ব্লকে ১২০ কোটি টাকার লেনদেন নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয় ঘিরে রেখেছে পুলিশ ভালোবাসা দিবসে ঘুরতে বের হয়ে দুর্ঘটনায় নববিবাহিত তরুণীর মৃত্যু করোনাভাইরাসে প্রাণহানিতে প্রধানমন্ত্রীর শোক প্যারোলে মুক্তি নিয়ে বিদেশ যেতে চান খালেদা জিয়া! শনিবার সিলেটের যেসব এলাকায় থাকবে না বিদ্যুৎ ভালোবাসা দিবসে সাকিবের আবেগী স্ট্যাটাস বাস ও নসিমনের সংঘর্ষে নিহত ৫ সিলেটে ১৬ কেজি গাঁজাসহ গ্রেপ্তার ১ মন্ত্রিসভায় রদবদল সিলেটে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য গ্রেপ্তার কোটি টাকার পাজেরো পাচ্ছেন ইউএনওরা বিমান বন্দরে ফুলেল ভালোবাসায় সিক্ত বিশ্বকাপজয়ী সিলেটের সাকিব তুরস্কে বাংলাদেশিসহ ১৩৫ অবৈধ অভিবাসী আটক চবির শিক্ষার্থীবাহী বাস খাদে পড়ে আহত ২৫ এতো উৎসব, উচ্ছ্বাসে বিস্ময় আকবরের মুজিববর্ষেই দেশের প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌছানো হবে....প্রধানমন্ত্রী ইসহাক কাজলের সাংবাদিকতা ও লেখনী স্মরণীয় হয়ে থাকবে ফিটনেসবিহীন কোন গাড়ি চলতে পারবে না....হাইকোর্ট জগন্নাথপুরে ৪ ভাই সহ গ্রেফতার ৫ ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের পাল্টা সংবাদ সম্মেলন ডাকাত সন্দেহে ২ যুবককে পিটিয়ে হত্যা সিলেটে ট্রাক চাপায় রিকশাচালকের মৃত্যু ভাইকে হত্যার পর থানায় হাজির হয়ে হত্যার কথা স্বীকার নিজ দায়িত্বে চীন থেকে ফিরতে হবে....পররাষ্ট্রমন্ত্রী দক্ষতার সঙ্গে টেলিটক পরিচালনা করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ সিলেট-জগন্নাথপুর সড়কে ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে কাজ শুরু মাটির নিচ থেকে হলেও মাদক কারবারি নির্মূল করা হবে: র‌্যাবের ডিজি সাংবাদিক ইসহাক কাজলের মৃত্যুতে সিলেট প্রেসক্লাবের শোক বসানো হল ২৪তম স্প্যান, পদ্মা সেতুর ৩৬০০ মিটার দৃশ্যমান সিলেটে পুলিশের পৃথক অভিযানে গ্রেপ্তার ৫ করোনা ভাইরাস: মৃতের সংখ্যা ৯০০ ছাড়াল, আক্রান্ত ৪০,৫৫৩ র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা নিহত সিলেটে নবাব উদ্দীনের বই নিয়ে লেখক-পাঠক আড্ডা সিলেটের নতুন পিপি নিজাম উদ্দিন সিলেটে স্যামসাং শোরুম থেকে চুরি হওয়া মালামালসহ গ্রেপ্তার ৪ ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে যেন খারাপ কিছু স্পর্শ করতে না পারে পুঁজিবাজার চাঙ্গা করতে আসছে চারটি রাষ্ট্রীয় ব্যাংক....অর্থমন্ত্রী আবু সরকারের জুলুম অত্যাচার থেকে পরিত্রাণ চান ট্রাক শ্রমিকেরা শেরপুরে মাদ্রাসা কেন্দ্র থেকে ভাড়া করা ১২ পরীক্ষার্থী আটক ভোলাগঞ্জ পাথর কোয়ারির রেল স্থাপনা পরিদর্শন করছেন রেলমন্ত্রী কোম্পানীগঞ্জে আ’লীগ নেতাকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য করলে দাঁতভাঙা জবাব শেখ হাসিনা বিশ্বের তিনজন সৎ ও পরিশ্রমী রাষ্ট্রনায়কের একজন টিলাগড়ে ছাত্রলীগ কর্মী খুনের ঘটনায় মামলা প্রাইভেটকার চাপায় মুক্তিযোদ্ধা নিহত মুবিজ বর্ষ উদযাপনে সিলেট প্রেসক্লাবের কর্মসূচি গ্রহণ সমাবেশে খালেদা জিয়ার মুক্তি মিলবে না....তথ্যমন্ত্রী শ্রীমঙ্গলে চা বাগানে কিশোরীকে ‘পালাক্রমে ধর্ষণ’, আটক ৩ প্রধানমন্ত্রী নিয়ে ফেসবুকে মিথ্যা পোস্ট, সিলেটে যুবক আটক ভোট কম পড়ার পেছনে দায়ী বিএনপি....তথ্যমন্ত্রী জগন্নাথপুরে গৃহবধূর আত্মহত্যা ব্যাংক ঋণ নারী উদ্যোক্তাদের অধিকার....শিক্ষামন্ত্রী টিলাগড়ে কথা কাটিকাটির জেরে ছাত্রলীগ কর্মী খুন শ্রীমঙ্গলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১ আ.লীগ নেতাকে গলা কেটে হত্যা: ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড চীন থেকে দেশে ফিরলেন হবিগঞ্জের ৬ শিক্ষার্থী ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে নতুন ১৭টি দেওয়ানি মামলা দক্ষিণ সুরমায় বাস ও অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ: নিহত ১ সুরঞ্জিত সেনের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত রোমে চ্যান্সেরি ভবন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বছরে ২৬ হাজার কোটি টাকা পাচার করছে বিদেশি কর্মীরা নগরীতে মাদক মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী গ্রেপ্তার নবীগঞ্জে বয়লার বিস্ফোরণে নিহত ১, আহত ৬ তুচ্ছ ঘটনার জেরে বিয়ানীবাজারে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০ ঢাবি থেকে বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ আপাতত গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই সিলেটে ছিনতাই করে পালানোর সময় ছিনতাইকারী আটক বিয়ে করলেন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাকির যে ব্যায়াম করে ৪৪ কেজি ওজন কমালেন সারা সিলেটে নিজের বুকে গুলি চালিয়ে পুলিশ সদস্যের আত্মহত্যার চেষ্টা বাঁধ কেটে ডুবিয়ে দেয়া হল কোম্পানীগঞ্জের ২১ কোয়ারি করোনাভাইরাস ঠেকাতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী র‌্যাবের অভিযানে মাদকসহ গ্রেপ্তার ২ সারাদেশে এসএসসি পরীক্ষায় বসেছে সাড়ে ২০ লাখ শিক্ষার্থী অনাগত সন্তানের লিঙ্গ প্রকাশ কেন অবৈধ নয়....হাইকোর্ট সিকৃবির পাশ থেকে অস্ত্রসহ যুবক আটক ভোলাগঞ্জে মাটি চাপায় পাথর শ্রমিক নিহতের ঘটনায় মামলা আকস্মিক অগ্নিকাণ্ড থেকে রক্ষা পেতে বিশেষ মহড়া বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল সেটাই ছিল লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী এসএসসি পরীক্ষা ৩ ফেব্রুয়ারি শুরু চীনাদের অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা স্থগিত উত্তর-দক্ষিণে কাউন্সিলর হলেন যারা মেয়র হলেন তাপস- আতিক ইভিএমে ভোট: কেউ খুশি, কেউ বিরক্ত! উহান থেকে ফিরলেন ৩১৪ জন বাংলাদেশি রাণীগঞ্জ সেতু ঢালাই কাজের উদ্বোধন করলেন পরিকল্পনামন্ত্রী সিলেটে বইমেলার উদ্বোধন সিলেটে বর্ণমালার মিছিলের মাধ্যমে বরণ করা হলো ভাষার মাস চুরির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে খুন ট্রাক্টর ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩ প্রাথমিকে আরও ২৬ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ফেব্রুয়ারিতে: গণশিক্ষা প্রতিম সিলেটে ৯ জঙ্গি আটক দুই সিটি নির্বাচন: প্রচারণায় গিয়ে হামলার শিকার রিজভী হবিগঞ্জে কবর থেকে স্কুলছাত্রীর লাশ উত্তোলন নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৪ ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার সাবেক ইউপি সদস্যের গুলিতে এসএসসি পরীক্ষার্থী মৃত্যু ঢাকায় আসছেন মোদি র‍্যাবের পৃথক অভিযান: বিদেশি রিভলভারসহ গ্রেপ্তার ৪ পদ্মা সেতুর ৩৫ চীনা কর্মী বিশেষ নজরদারিতে শাবিপ্রবিতে মাসব্যাপী র‌্যাগিং বিরোধী ক্যাম্পেইন শুরু আর কোন দিন হেলিকপ্টার চড়বেন না সাকিব সীমান্তে অবৈধভাবে গরু আনতে গিয়ে নিহত হলে তার দায় নেবে না সরকার রাজধানীর সিটিং সার্ভিস হচ্ছে চিটিং সার্ভিস....কাদের দিরাই সড়কে পিকআপ চাপায় আমেরিকা প্রবাসীসহ ২জন নিহত মাধবপুরে ২ জনকে হত্যা, দুর্ঘটনার নাটক সাজায় লালমাটিয়ায় এসকে সিনহাকে ‘মাজায় দড়ি’ লাগিয়ে টেনে দেশে আনা হবে:মোজাম্মেল হক নিখুঁত ও স্বচ্ছতার সাথে জনশুমারি করতে হবে:পরিকল্পনামন্ত্রী হাইকোর্টে জামিন চাইলেন প্রথম আলোর সম্পাদক এসএসসি পরীক্ষা ৩ ফেব্রুয়ারি,সংশোধিত রুটিন প্রকাশ ইভটিজিং ও নিরাপত্তা নিশ্চিত হলে বাল্যবিবাহ রোধ ও শিক্ষা বাড়বে মৌলভীবাজারে বাগানে ৪ জনকে কুপিয়ে হত্যার পর ঘাতকের আত্মহত্যা ভারতের নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের প্রয়োজন ছিল না:প্রধানমন্ত্রী হাসিনা শিক্ষা বানিজ্যের প্রতিবাদে সিলেট ল কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ‘প্রথম আলো’র সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণ: আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি সিলেটে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১ ‘হাইকোর্টের আদেশ মেনে আন্দোলন থেকে বিরত থাকুন’....কাদের

ঘরে থাকুন, করোনা মোকাবিলা যুদ্ধেও জয়ী হবো: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৬ মার্চ ২০২০  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৯৭১ সালে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আমরা শত্রুর মোকাবিলা করে বিজয়ী হয়েছি। করোনাভাইরাস মোকাবিলাও একটা যুদ্ধ। এ যুদ্ধে আপনার দায়িত্ব ঘরে থাকা। আমরা সকলের প্রচেষ্টায় এ যুদ্ধে জয়ী হবো, ইনশাআল্লাহ।

করোনাভাইরাস সম্পর্কিত বিষয়সহ দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল বিটিভি ও বাংলাদেশ বেতারে একযোগে সম্প্রচারের পাশাপাশি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ও রেডিও স্টেশনগুলো প্রধানমন্ত্রীর এ ভাষণ সম্প্রচার করে।

তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। সকলে যার যার ঘরে থাকুন, ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিরাপদ থাকুন। মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হোন। 

এই মুহূর্তে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার মানুষকে রক্ষা করা

প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যের শুরুতে বঙ্গবন্ধুসহ স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদের স্মরণ করেন। এরপর প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নিয়ে তিনি বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আমাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার মানুষকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এবারের স্বাধীনতা দিবস এক ভিন্ন প্রেক্ষাপটে উদযাপিত হচ্ছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গোটা বিশ্ব এখন বিপর্যস্ত। ধনী বা দরিদ্র, উন্নত বা উন্নয়নশীল, ছোট বা বড়- সব দেশই আজ কমবেশি নভেল করোনা নামক এক ভয়ঙ্কর ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত। আমাদের প্রাণপ্রিয় বাংলাদেশও এ সংক্রমণ থেকে মুক্ত নয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে আমরা এবারের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ভিন্নভাবে উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। জনসমাগম হয় এমন ধরনের সব অনুষ্ঠানের আয়োজন থেকে সবাইকে বিরত থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি। জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনসহ সকল জেলায় শিশু সমাবেশ ইতোমধ্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একই কারণে আমরা মুজিববর্ষের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জনসমাগম না করে টেলিভিশনের মাধ্যমে সম্প্রচার করেছি। 

শেখ হাসিনা তার সরকার নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও দেশের অগ্রযাত্রা তুলে ধরে বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস জনস্বাস্থ্যসহ বৈশ্বিক অর্থনীতির উপর নেতিবাচক থাবা বসাতে যাচ্ছে বলে বিশেষজ্ঞরা আভাস দিচ্ছেন। আমাদের উপরও এই আঘাত আসতে পারে।  আমি জানি আপনারা এক ধরনের আতঙ্ক ও দুশ্চিন্তার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। যাঁদের আত্মীয়স্বজন বিদেশে রয়েছেন, তাঁরাও তাঁদের নিকটজনদের জন্য উদ্বিগ্ন রয়েছেন।  আমি সকলের মানসিক অবস্থা বুঝতে পারছি। কিন্তু এই সঙ্কটময় সময়ে আমাদের ধৈর্য্য এবং সাহসিকতার সঙ্গে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে। এই ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের উপদেশ আমাদের মেনে চলতে হবে। আমাদের যতদূর সম্ভব মানুষের ভিড় এড়িয়ে চলতে হবে। 

করোনা নিয়ে গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা

প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ে কেউ গুজব ছড়াবেন না। গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসাসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর্মীদেরই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। তাদের সুরক্ষার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ সরঞ্জাম সরবরাহ করা হয়েছে এবং যথেষ্ট পরিমাণ সরঞ্জাম মজুদ আছে। ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রীরও পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে। এ ব্যাপারে বিভ্রান্ত হবেন না। স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষার বিষয়ে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।  গতকাল পর্যন্ত ১৩ হাজার পরীক্ষা কিট মজুদ ছিল। আরও ৩০ হাজার কিট শিগগিরই দেশে পৌঁছবে।  ঢাকায় ৮টি পরীক্ষার যন্ত্র রয়েছে। দেশের অন্য ৭টি বিভাগে করোনাভাইরাস পরীক্ষাগার স্থাপনের কাজ চলছে।   

অহেতুক দ্রব্যমূল্য বাড়াবেন না

অযৌক্তিক নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম না বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এ সঙ্কটময় সময়ে আমাদের সহনশীল এবং সংবেদনশীল হতে হবে। কেউ সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করবেন না। বাজারে কোন পণ্যের ঘাটতি নেই। দেশের অভ্যন্তরে এবং বাইরের সঙ্গে সরবরাহ চেইন অটুট রয়েছে। অযৌক্তিক নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি করবেন না। জনগণের দুর্ভোগ বাড়াবেন না। সর্বত্র বাজার মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

দেশবাসীর উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুগে যুগে জাতীয় জীবনে নানা সঙ্কটময় মুহূর্ত আসে। জনগণের সম্মিলিত শক্তির বলেই সেসব দুর্যোগ থেকে মানুষ পরিত্রাণ পেয়েছে। ইতোপূর্বে প্লেগ, গুটি বসন্ত, কলেরার মত মহামারী মানুষ প্রতিরোধ করেছে। তবে ওইসব মহামারীর সময় বিশ্ব এখনকার ঘনিষ্ঠভাবে সংযুক্ত ছিল না। এত বিপুল সংখ্যক মানুষ তখন একদেশ থেকে অন্য দেশে বা একস্থান থেকে অন্যস্থানে যাতায়াত করতো না। এ কারণে করোনাভাইরাস দ্রুততম সময়ে সমগ্র বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে বিজ্ঞান-প্রযুক্তিরও প্রভূত উন্নতি সাধিত হয়েছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় নিশ্চয়ই বিশ্ববাসী এ দুর্যোগ থেকে দ্রুত পরিত্রাণ পাবে।   

অতিরিক্ত পণ্য না কেনার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের এখন কৃচ্ছতা সাধনের সময়। যতটুকু না হলে নয়, তার অতিরিক্ত কোন ভোগ্যপণ্য কিনবেন না। মজুদ করবেন না। সীমিত আয়ের মানুষকে কেনার সুযোগ দিন। 

দেশে পর্যাপ্ত খাদ্যশস্য মজুদ থাকার কথা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এ বছর রোপা আমনের বাম্পার ফলন হয়েছে। সরকারি গুদামগুলোতে ১৭ লাখ মেট্রিক টনের বেশি খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে।  এছাড়া, বেসরকারি মিল মালিকদের কাছে এবং কৃষকদের ঘরে প্রচুর পরিমাণ খাদ্যশস্য মজুদ আছে। চলতি মওসুমে আলু-পিয়াজ-মরিচ-গমের বাম্পার ফলন হয়েছে।

কৃষকদের অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো জমি ফেলে রাখবেন না। আরও বেশি বেশি ফসল ফলান। দুর্যোগের সময়ই মনুষত্যের পরীক্ষা হয়। এখনই সময় পরস্পরকে সহায়তা করার; মানবতা প্রর্দশনের। বাঙালি বীরের জাতি। নানা দুর্যোগে-সঙ্কটে বাঙালি জাতি সম্মিলিতভাবে সেগুলো মোকাবিলা করেছে। 

প্রবাসীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধ 

যারা করোনাভাইরাস-আক্রান্ত দেশ থেকে স্বদেশে ফিরেছেন, সেসব প্রবাসীদের কাছে অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনাদের হোম কোয়ারেন্টাইন বা বাড়িতে সঙ্গ-নিরোধসহ যেসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সেগুলো অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলুন। মাত্র ১৪ দিন আলাদা থাকুন। আপনার পরিবার, পাড়া প্রতিবেশী, এলাকাবাসী এবং সর্বোপরি দেশের মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য এসব নির্দেশনা মেনে চলা প্রয়োজন।

কয়েকটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঘনঘন সাবান-পানি দিয়ে হাত ধুতে হবে। হাঁচি-কাশি দিতে হলে রুমাল বা টিস্যু পেপার দিয়ে নাক-মুখ ঢেকে নিবেন। যেখানে-সেখানে কফ-থুথু ফেলবেন না। করমর্দন বা কোলাকুলি থেকে বিরত থাকুন। যতদূর সম্ভব ঘরে থাকবেন। অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না। বাইরে জরুরি কাজ সেরে বাড়িতে থাকুন। মুসলমান ভাইয়েরা ঘরেই নামাজ আদায় করুন এবং অন্যান্য ধর্মের ভাইবোনদেরও ঘরে বসে প্রার্থনা করার অনুরোধ জানাচ্ছি। আই.ই.ডি.সি.আর-এর হটলাইন নম্বর খোলা হয়েছে। এছাড়া সোসাইটি অব ডক্টরস তাদের ৫০০টি নম্বর উন্মুক্ত করে দিয়েছে। করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে ঐসব নম্বরে যোগাযোগ করুন। সরকার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস দ্রুত ছড়ানোর ক্ষমতা রাখলেও ততটা প্রাণঘাতী নয়। এ ভাইরাসে আক্রান্ত সিংহভাগ মানুষই কয়েকদিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেন। তবে, আগে থেকেই নানা রোগে আক্রান্ত এবং বয়স্ক মানুষদের জন্য এই ভাইরাস বেশ প্রাণ-সংহারী হয়ে উঠেছে। সে জন্য আপনার পরিবারের সবচেয়ে সংবেদনশীল মানুষটির প্রতি বেশি নজর দিন। তাঁকে সুস্থ রাখার চেষ্টা করুন। তাঁকে ভাইরাসমুক্ত রাখার সর্বাত্মক উদ্যোগ গ্রহণ করুন। আতঙ্কিত হবেন না। আতঙ্ক মানুষের যৌক্তিক চিন্তাভাবনার বিলোপ ঘটায়। সব সময় খেয়াল রাখুন আপনি, আপনার পরিবারের সদস্য এবং আপনার প্রতিবেশিরা যেন সংক্রমিত না হন। আপনার সচেতনতা আপনাকে, আপনার পরিবারকে এবং সর্বোপরি দেশের মানুষকে সুরক্ষিত রাখবে।  

নিম্নবিত্তরা নিজ গ্রামে পাবেন সহায়তা, ভাসানচরে কর্মসংস্থানের সুযোগ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে অনেক মানুষ কাজ হারিয়েছেন। আমাদের তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। নিম্ন আয়ের ব্যক্তিদের ‘ঘরে-ফেরা’ কর্মসূচির আওতায় নিজ নিজ গ্রামে সহায়তা প্রদান করা হবে। গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য বিনামূল্যে ঘর, ৬ মাসের খাদ্য এবং নগদ অর্থ প্রদান করা হবে। জেলা প্রশাসনকে এ ব্যাপারে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

করোনাভাইরাসের কারণে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য রকারের নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিনামূল্যে ভিজিডি, ভিজিএফ এবং ১০ টাকা কেজি দরে চাল সরবরাহ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। একইভাবে বিনামূল্যে ওষুধ ও চিকিৎসা সেবা ও দেওয়া হচ্ছে। নিম্ন-আয়ের মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসার জন্য বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভাসানচরে ১ লাখ মানুষের থাকার ও কর্মসংস্থান উপযোগী আবাসন ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। সেখানে কেউ যেতে চাইলে সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। 

করোনা মোকাবেলায় সরকারের নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয়ে আপনারা ইতোমধ্যেই জেনেছেন। তবুও আমি কয়েকটি বিষয়ের কথা আবারও উল্লেখ করছি। দেশের সকল স্কুল কলেজ ও কোচিং সেন্টার গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। সকল পর্যটন এবং বিনোদন কেন্দ্রও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। যেকোন রাজনৈতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় সমাবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। আগামিকাল ২৬-এ মার্চ থেকে ৪ঠা এপ্রিল পর্যন্ত সকল সরকারি-বেসরবারি অফিস বন্ধ থাকবে। 

তবে কাঁচাবাজার, খাবার ও ওষুধের দোকান এবং হাসপাতালসহ জরুরি সেবা কার্যক্রম চালু থাকবে বলে জানান তিনি। 

শেখ হাসিনা বলেন, গতরাত থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন, নৌযান এবং অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক সীমিত আকারে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু রাখবে। ২৪-এ মার্চ থেকে বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা বলবৎ হয়েছে।  এটি কার্যকর করতে জেলা প্রশাসনকে সেনাবাহিনীর সদস্যগণ সহায়তা করছেন। আপনারা যে যেখানে আছেন, সেখানেই অবস্থান করুন। করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন এবং স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ ৫০০ চিকিৎসকের তালিকা তৈরি করেছে যাঁরা জনগণকে সেবা প্রদান করবেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক সহযোগিতার ভিত্তিতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের লক্ষ্যে গত ১৫ মার্চ সার্কভুক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানগণের সঙ্গে আমি ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে যুক্ত হই। এ রোগের প্রাদুর্ভাব রোধে আঞ্চলিকভাবে সম্মিলিত প্রয়াস গ্রহণের জন্য আমি সার্কভুক্ত দেশসমূহের নেতাদের উদাত্ত আহ্বান জানাই। সার্কভুক্ত দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়গুলো প্রস্তাবিত সুপারিশমালা বাস্তবায়নে একযোগে কাজ করছে। আমরা একটি যৌথ তহবিল গঠনের সিদ্ধান্ত  নিয়েছি যাতে বাংলাদেশ ১৫ লাখ ডলার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

রপ্তানিমুখী শিল্পের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আমাদের শিল্প উৎপাদন এবং রপ্তানি বাণিজ্যে আঘাত আসতে পারে। এই আঘাত মোকাবিলায় আমরা কিছু আপৎকালীন ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। রপ্তানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য আমি ৫ হাজার কোটি টাকার একটি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করছি। এ তহবিলের অর্থ দ্বারা কেবল শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা যাবে। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক ইতোমধ্যে ব্যবসায়-বান্ধব বেশকিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক আগামী জুন মাস পর্যন্ত কোন গ্রাহককে ঋণখেলাপি না করার ঘোষণা দিয়েছে। রপ্তানি আয় আদায়ের সময়সীমা ২ মাস থেকে বৃদ্ধি করে ৬ মাস করা হয়েছে। একইভাবে আমদানি ব্যয় মেটানোর সময়সীমা ৪ মাস থেকে বৃদ্ধি করে ৬ মাস করা হয়েছে। মোবাইলে ব্যাংকিং-এ আর্থিক লেনদেনের সীমা বাড়ানো হয়েছে। বিদ্যুৎ, পানি এবং গ্যাস বিল পরিশোধের সময়সীমা সারচার্জ বা জরিমানা ছাড়া জুন মাস পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এনজিওগুলোর ঋণের কিস্তি পরিশোধ সাময়িক স্থগিত করা হয়েছে।

যেকোন কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সরকার প্রস্তুত রয়েছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, 'আজ সমগ্র বিশ্ব এক অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে চলছে। আমরা জনগণের সরকার। সব সময়ই আমরা জনগণের পাশে আছি। আমি নিজে সর্বক্ষণ পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি।'

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৯৭১ সালে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আমরা শত্রুর মোকাবিলা করে বিজয়ী হয়েছি। করোনাভাইরাস মোকাবিলাও একটা যুদ্ধ। এ যুদ্ধে আপনার দায়িত্ব ঘরে থাকা। আমরা সকলের প্রচেষ্টায় এ যুদ্ধে জয়ী হবো, ইনশাআল্লাহ।

করোনাভাইরাস সম্পর্কিত বিষয়সহ দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল বিটিভি ও বাংলাদেশ বেতারে একযোগে সম্প্রচারের পাশাপাশি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ও রেডিও স্টেশনগুলো প্রধানমন্ত্রীর এ ভাষণ সম্প্রচার করে।

তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। সকলে যার যার ঘরে থাকুন, ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিরাপদ থাকুন। মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হোন। 

এই মুহূর্তে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার মানুষকে রক্ষা করা

প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যের শুরুতে বঙ্গবন্ধুসহ স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদের স্মরণ করেন। এরপর প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নিয়ে তিনি বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আমাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার মানুষকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এবারের স্বাধীনতা দিবস এক ভিন্ন প্রেক্ষাপটে উদযাপিত হচ্ছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গোটা বিশ্ব এখন বিপর্যস্ত। ধনী বা দরিদ্র, উন্নত বা উন্নয়নশীল, ছোট বা বড়- সব দেশই আজ কমবেশি নভেল করোনা নামক এক ভয়ঙ্কর ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত। আমাদের প্রাণপ্রিয় বাংলাদেশও এ সংক্রমণ থেকে মুক্ত নয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে আমরা এবারের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ভিন্নভাবে উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। জনসমাগম হয় এমন ধরনের সব অনুষ্ঠানের আয়োজন থেকে সবাইকে বিরত থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি। জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনসহ সকল জেলায় শিশু সমাবেশ ইতোমধ্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একই কারণে আমরা মুজিববর্ষের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জনসমাগম না করে টেলিভিশনের মাধ্যমে সম্প্রচার করেছি। 

শেখ হাসিনা তার সরকার নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও দেশের অগ্রযাত্রা তুলে ধরে বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস জনস্বাস্থ্যসহ বৈশ্বিক অর্থনীতির উপর নেতিবাচক থাবা বসাতে যাচ্ছে বলে বিশেষজ্ঞরা আভাস দিচ্ছেন। আমাদের উপরও এই আঘাত আসতে পারে।  আমি জানি আপনারা এক ধরনের আতঙ্ক ও দুশ্চিন্তার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। যাঁদের আত্মীয়স্বজন বিদেশে রয়েছেন, তাঁরাও তাঁদের নিকটজনদের জন্য উদ্বিগ্ন রয়েছেন।  আমি সকলের মানসিক অবস্থা বুঝতে পারছি। কিন্তু এই সঙ্কটময় সময়ে আমাদের ধৈর্য্য এবং সাহসিকতার সঙ্গে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে। এই ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের উপদেশ আমাদের মেনে চলতে হবে। আমাদের যতদূর সম্ভব মানুষের ভিড় এড়িয়ে চলতে হবে। 

করোনা নিয়ে গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা

প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ে কেউ গুজব ছড়াবেন না। গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসাসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর্মীদেরই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। তাদের সুরক্ষার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ সরঞ্জাম সরবরাহ করা হয়েছে এবং যথেষ্ট পরিমাণ সরঞ্জাম মজুদ আছে। ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রীরও পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে। এ ব্যাপারে বিভ্রান্ত হবেন না। স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষার বিষয়ে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।  গতকাল পর্যন্ত ১৩ হাজার পরীক্ষা কিট মজুদ ছিল। আরও ৩০ হাজার কিট শিগগিরই দেশে পৌঁছবে।  ঢাকায় ৮টি পরীক্ষার যন্ত্র রয়েছে। দেশের অন্য ৭টি বিভাগে করোনাভাইরাস পরীক্ষাগার স্থাপনের কাজ চলছে।   

অহেতুক দ্রব্যমূল্য বাড়াবেন না

অযৌক্তিক নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম না বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এ সঙ্কটময় সময়ে আমাদের সহনশীল এবং সংবেদনশীল হতে হবে। কেউ সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করবেন না। বাজারে কোন পণ্যের ঘাটতি নেই। দেশের অভ্যন্তরে এবং বাইরের সঙ্গে সরবরাহ চেইন অটুট রয়েছে। অযৌক্তিক নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি করবেন না। জনগণের দুর্ভোগ বাড়াবেন না। সর্বত্র বাজার মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

দেশবাসীর উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুগে যুগে জাতীয় জীবনে নানা সঙ্কটময় মুহূর্ত আসে। জনগণের সম্মিলিত শক্তির বলেই সেসব দুর্যোগ থেকে মানুষ পরিত্রাণ পেয়েছে। ইতোপূর্বে প্লেগ, গুটি বসন্ত, কলেরার মত মহামারী মানুষ প্রতিরোধ করেছে। তবে ওইসব মহামারীর সময় বিশ্ব এখনকার ঘনিষ্ঠভাবে সংযুক্ত ছিল না। এত বিপুল সংখ্যক মানুষ তখন একদেশ থেকে অন্য দেশে বা একস্থান থেকে অন্যস্থানে যাতায়াত করতো না। এ কারণে করোনাভাইরাস দ্রুততম সময়ে সমগ্র বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে বিজ্ঞান-প্রযুক্তিরও প্রভূত উন্নতি সাধিত হয়েছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় নিশ্চয়ই বিশ্ববাসী এ দুর্যোগ থেকে দ্রুত পরিত্রাণ পাবে।   

অতিরিক্ত পণ্য না কেনার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের এখন কৃচ্ছতা সাধনের সময়। যতটুকু না হলে নয়, তার অতিরিক্ত কোন ভোগ্যপণ্য কিনবেন না। মজুদ করবেন না। সীমিত আয়ের মানুষকে কেনার সুযোগ দিন। 

দেশে পর্যাপ্ত খাদ্যশস্য মজুদ থাকার কথা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এ বছর রোপা আমনের বাম্পার ফলন হয়েছে। সরকারি গুদামগুলোতে ১৭ লাখ মেট্রিক টনের বেশি খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে।  এছাড়া, বেসরকারি মিল মালিকদের কাছে এবং কৃষকদের ঘরে প্রচুর পরিমাণ খাদ্যশস্য মজুদ আছে। চলতি মওসুমে আলু-পিয়াজ-মরিচ-গমের বাম্পার ফলন হয়েছে।

কৃষকদের অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো জমি ফেলে রাখবেন না। আরও বেশি বেশি ফসল ফলান। দুর্যোগের সময়ই মনুষত্যের পরীক্ষা হয়। এখনই সময় পরস্পরকে সহায়তা করার; মানবতা প্রর্দশনের। বাঙালি বীরের জাতি। নানা দুর্যোগে-সঙ্কটে বাঙালি জাতি সম্মিলিতভাবে সেগুলো মোকাবিলা করেছে। 

প্রবাসীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধ 

যারা করোনাভাইরাস-আক্রান্ত দেশ থেকে স্বদেশে ফিরেছেন, সেসব প্রবাসীদের কাছে অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনাদের হোম কোয়ারেন্টাইন বা বাড়িতে সঙ্গ-নিরোধসহ যেসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সেগুলো অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলুন। মাত্র ১৪ দিন আলাদা থাকুন। আপনার পরিবার, পাড়া প্রতিবেশী, এলাকাবাসী এবং সর্বোপরি দেশের মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য এসব নির্দেশনা মেনে চলা প্রয়োজন।

কয়েকটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঘনঘন সাবান-পানি দিয়ে হাত ধুতে হবে। হাঁচি-কাশি দিতে হলে রুমাল বা টিস্যু পেপার দিয়ে নাক-মুখ ঢেকে নিবেন। যেখানে-সেখানে কফ-থুথু ফেলবেন না। করমর্দন বা কোলাকুলি থেকে বিরত থাকুন। যতদূর সম্ভব ঘরে থাকবেন। অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না। বাইরে জরুরি কাজ সেরে বাড়িতে থাকুন। মুসলমান ভাইয়েরা ঘরেই নামাজ আদায় করুন এবং অন্যান্য ধর্মের ভাইবোনদেরও ঘরে বসে প্রার্থনা করার অনুরোধ জানাচ্ছি। আই.ই.ডি.সি.আর-এর হটলাইন নম্বর খোলা হয়েছে। এছাড়া সোসাইটি অব ডক্টরস তাদের ৫০০টি নম্বর উন্মুক্ত করে দিয়েছে। করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে ঐসব নম্বরে যোগাযোগ করুন। সরকার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস দ্রুত ছড়ানোর ক্ষমতা রাখলেও ততটা প্রাণঘাতী নয়। এ ভাইরাসে আক্রান্ত সিংহভাগ মানুষই কয়েকদিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেন। তবে, আগে থেকেই নানা রোগে আক্রান্ত এবং বয়স্ক মানুষদের জন্য এই ভাইরাস বেশ প্রাণ-সংহারী হয়ে উঠেছে। সে জন্য আপনার পরিবারের সবচেয়ে সংবেদনশীল মানুষটির প্রতি বেশি নজর দিন। তাঁকে সুস্থ রাখার চেষ্টা করুন। তাঁকে ভাইরাসমুক্ত রাখার সর্বাত্মক উদ্যোগ গ্রহণ করুন। আতঙ্কিত হবেন না। আতঙ্ক মানুষের যৌক্তিক চিন্তাভাবনার বিলোপ ঘটায়। সব সময় খেয়াল রাখুন আপনি, আপনার পরিবারের সদস্য এবং আপনার প্রতিবেশিরা যেন সংক্রমিত না হন। আপনার সচেতনতা আপনাকে, আপনার পরিবারকে এবং সর্বোপরি দেশের মানুষকে সুরক্ষিত রাখবে।  

নিম্নবিত্তরা নিজ গ্রামে পাবেন সহায়তা, ভাসানচরে কর্মসংস্থানের সুযোগ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে অনেক মানুষ কাজ হারিয়েছেন। আমাদের তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। নিম্ন আয়ের ব্যক্তিদের ‘ঘরে-ফেরা’ কর্মসূচির আওতায় নিজ নিজ গ্রামে সহায়তা প্রদান করা হবে। গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য বিনামূল্যে ঘর, ৬ মাসের খাদ্য এবং নগদ অর্থ প্রদান করা হবে। জেলা প্রশাসনকে এ ব্যাপারে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

করোনাভাইরাসের কারণে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য রকারের নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিনামূল্যে ভিজিডি, ভিজিএফ এবং ১০ টাকা কেজি দরে চাল সরবরাহ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। একইভাবে বিনামূল্যে ওষুধ ও চিকিৎসা সেবা ও দেওয়া হচ্ছে। নিম্ন-আয়ের মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসার জন্য বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভাসানচরে ১ লাখ মানুষের থাকার ও কর্মসংস্থান উপযোগী আবাসন ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। সেখানে কেউ যেতে চাইলে সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। 

করোনা মোকাবেলায় সরকারের নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয়ে আপনারা ইতোমধ্যেই জেনেছেন। তবুও আমি কয়েকটি বিষয়ের কথা আবারও উল্লেখ করছি। দেশের সকল স্কুল কলেজ ও কোচিং সেন্টার গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। সকল পর্যটন এবং বিনোদন কেন্দ্রও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। যেকোন রাজনৈতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় সমাবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। আগামিকাল ২৬-এ মার্চ থেকে ৪ঠা এপ্রিল পর্যন্ত সকল সরকারি-বেসরবারি অফিস বন্ধ থাকবে। 

তবে কাঁচাবাজার, খাবার ও ওষুধের দোকান এবং হাসপাতালসহ জরুরি সেবা কার্যক্রম চালু থাকবে বলে জানান তিনি। 

শেখ হাসিনা বলেন, গতরাত থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন, নৌযান এবং অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক সীমিত আকারে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু রাখবে। ২৪-এ মার্চ থেকে বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা বলবৎ হয়েছে।  এটি কার্যকর করতে জেলা প্রশাসনকে সেনাবাহিনীর সদস্যগণ সহায়তা করছেন। আপনারা যে যেখানে আছেন, সেখানেই অবস্থান করুন। করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন এবং স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ ৫০০ চিকিৎসকের তালিকা তৈরি করেছে যাঁরা জনগণকে সেবা প্রদান করবেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক সহযোগিতার ভিত্তিতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের লক্ষ্যে গত ১৫ মার্চ সার্কভুক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানগণের সঙ্গে আমি ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে যুক্ত হই। এ রোগের প্রাদুর্ভাব রোধে আঞ্চলিকভাবে সম্মিলিত প্রয়াস গ্রহণের জন্য আমি সার্কভুক্ত দেশসমূহের নেতাদের উদাত্ত আহ্বান জানাই। সার্কভুক্ত দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়গুলো প্রস্তাবিত সুপারিশমালা বাস্তবায়নে একযোগে কাজ করছে। আমরা একটি যৌথ তহবিল গঠনের সিদ্ধান্ত  নিয়েছি যাতে বাংলাদেশ ১৫ লাখ ডলার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

রপ্তানিমুখী শিল্পের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আমাদের শিল্প উৎপাদন এবং রপ্তানি বাণিজ্যে আঘাত আসতে পারে। এই আঘাত মোকাবিলায় আমরা কিছু আপৎকালীন ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। রপ্তানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য আমি ৫ হাজার কোটি টাকার একটি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করছি। এ তহবিলের অর্থ দ্বারা কেবল শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা যাবে। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক ইতোমধ্যে ব্যবসায়-বান্ধব বেশকিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক আগামী জুন মাস পর্যন্ত কোন গ্রাহককে ঋণখেলাপি না করার ঘোষণা দিয়েছে। রপ্তানি আয় আদায়ের সময়সীমা ২ মাস থেকে বৃদ্ধি করে ৬ মাস করা হয়েছে। একইভাবে আমদানি ব্যয় মেটানোর সময়সীমা ৪ মাস থেকে বৃদ্ধি করে ৬ মাস করা হয়েছে। মোবাইলে ব্যাংকিং-এ আর্থিক লেনদেনের সীমা বাড়ানো হয়েছে। বিদ্যুৎ, পানি এবং গ্যাস বিল পরিশোধের সময়সীমা সারচার্জ বা জরিমানা ছাড়া জুন মাস পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এনজিওগুলোর ঋণের কিস্তি পরিশোধ সাময়িক স্থগিত করা হয়েছে।

যেকোন কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সরকার প্রস্তুত রয়েছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, 'আজ সমগ্র বিশ্ব এক অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে চলছে। আমরা জনগণের সরকার। সব সময়ই আমরা জনগণের পাশে আছি। আমি নিজে সর্বক্ষণ পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত