ঢাকা, ০৯ মে, ২০২১
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
মহাখালীতে দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতাল চালু হচ্ছে রবিবার করোনায় এক দিনে রেকর্ড সর্বোচ্চ ১০১ জনের মৃত্যু খালেদা জিয়ার চিকিৎসা চলবে বাসায়, একটি নতুন ওষুধ যুক্ত দিল্লিতে একটি শয্যায় দু’জন কোভিড রোগী, দৈনিক সংক্রমণ ২ লাখ দ্বিতীয় ডোজেই শেষ নয়, নিতে হতে পারে তৃতীয় ডোজও সিলেটের গোলাপগঞ্জে মন্দিরে তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টা, পুরোহিত গ্রেফতার

খালেদা জিয়া ভালো আছেন, প্রয়োজনে হাসপাতালে নেয়া হবে: ডা.সিদ্দিকী

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০২১  

করোনা আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ভালো আছেন, তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে।

সোমবার সন্ধ্যায় খালেদা জিয়ার চিকিৎসক দলের প্রধান অধ্যাপক ডা. এফ এম সিদ্দিকী বিএনপি চেয়ারপারসনের স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে এই কথা জানান। খালেদা জিয়ার বাসভবন ফিরোজায় সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন তিনি।

ডা. সিদ্দিকী বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে। তিনি ভালো আছেন, স্বাভাবিক আছেন। এখন পর্যন্ত করোনায় তার শারীরিক কোনো জটিলতা দেখা যায়নি।

খালেদা জিয়ার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার ব্যাপারে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ম্যাডামের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আজ পর্যন্ত যথেষ্ট ভালো আছে। এভাবে এক সপ্তাহ গেলে বলা যাবে উনি শঙ্কামুক্ত।

৪৮ ঘণ্টা পর পর খালেদা জিয়ার শারীরিক পরীক্ষা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসক দলের প্রধান ডা. সিদ্দিকী।

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার সময় বিদেশ থেকে কোনো চিকিৎসক ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের সঙ্গে যুক্তরাজ্য থেকে চিকিৎসক যুক্ত ছিলেন। এ ছাড়া বেগম জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমানও যুক্ত ছিলেন। তিনি সব কিছু তদারকি করছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হবে কিনা জানতে চাইলে ডা. সিদ্দিকী বলেন, এখন পর্যন্ত তাকে বাসায় রেখে চিকিৎসা দেওয়ার সিদ্ধান্ত রয়েছে। তবে হাসপাতালে নেওয়ার পরিস্থিতি দেখা দিলে সে প্রস্তুতিও আমাদের আছে। আমরা সব রকম প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি।

চিকিৎসক জানান, খালেদা জিয়া দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন, সবাইকে সাবধানতার সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।

ব্রিফিংয়ে অধ্যাপক ডা. এফ এম সিদ্দিকীর সঙ্গে ছিলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসক ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন ও ডা. আল মামুন।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত