ঢাকা, ০৭ আগস্ট, ২০২০
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
সব মানুষের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক, ১১ নির্দেশনা পবিত্র হজ ৩০ জুলাই চুক্তিতে থাকা বিতর্কিত স্বাস্থ্যের ডিজি ডা. আবুল কালামের পদত্যাগ ১ আগস্ট পবিত্র ঈদুল আজহা

কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটে ৩টি করোনা আইসোলেশন সেন্টার চালাবে

মুহাম্মদ তাজ উদ্দিন

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০২০  

সিলেটে ৩টি করোনা আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশন। সিলেট খাদিমনগরস্থ সিলেট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও সিলেট নগরীর আবুল মাল আব্দুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে এই ৩টি আইসোলেশন সেন্টার স্থাপন করা হবে।

এরমধ্যে সিলেট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন সেন্টারের কার্যক্রম আগামী সপ্তাহ থেকেই শুরু করা হবে। এই আইসোলেশন সেন্টারগুলোতে ডাক্তার নার্সসহ প্রয়োজনীয় জনবল দেবে সরকার। আর অক্সিজেন সাপ্লাই, প্রয়োজনীয় ঔষদ এবং যাবতীয় চিকিৎসা সামগ্রী প্রদান করবে সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশন।

সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশনের কোষাধ্যক্ষ রোটারিয়ান জুবায়ের আহমদ চৌধুরী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ডা. শামসু্দ্দিনের পুত্র, সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশনের সভাপতি,  যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা. জিয়াউদ্দিন আহমদের একক প্রচেষ্টায় ইতোমধ্যে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে সিলেটের এই ৩টি হাসপাতালে সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশনের সহায়তায় আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের ব্যাপারে ইতিবাচক সম্পতি পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশন ও সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা খাদিমনগরস্থ সিলেট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শণ করেছেন। তারা সিলেট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে করোনা আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনে কি কি সরঞ্জাম লাগবে তার তালিকা প্রস্তুত করেছেন। আজ কালের মধ্যেই ঢাকা থেকে এসব সামগ্রী সংগ্রহ করে আগামী সপ্তাহেই সিলেট সদর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রকে করোনা আইসোলেশন সেন্টারে রূপান্তর করা সম্ভব হবে।

জুবায়ের আহমদ চৌধুরী জানান, সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব মেজর (অব.) আব্দুস সালাম ও সাবেক উর্ধ্বতন সরকারী কর্মকর্তা চৌধুরী মুফাদ আহমদের কাছে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের তালিকা পাঠানো হয়েছে। তারা দু’জনে সরকারের উর্ধ্বতন মহলে আলোচনা করে এই ৩টি আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের প্রাথমিক অনুমোদন নিয়েছেন এবং প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম সংগ্রহ করে সিলেটে প্রেরণের ব্যবস্থা করছেন।

তিনি জানান, কিডনী ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ৩টি আইসোলেশন সেন্টার স্থাপন ও এগুলো পরিচালনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে ইতোমধ্যে তহবিল সংগ্রহ শুরু করেছেন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান, শহীদ ডা. শামসুদ্দিন আহমদের পুত্র ডা.জিয়াউদ্দিন চৌধুরী। যুক্তরাষ্ট্রের দানশীল ব্যক্তিরা ইতোমধ্যে ১ লাখ ডলার আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন। এর মধ্যে এক ব্যক্তিই দান করেছেন ৪০ হাজার ডলার। সিলেটে ও সিলেটের বাইরের দানশীল ব্যক্তিদের দেয়া দান-অনুদানে এ আইসোলেশন সেন্টারগুলো পরিচালিত হবে।

জুবায়ের আহমদ চৌধুরী আরো জানান, আগামী সপ্তাহে খাদিমনগরে সিলেট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পর পরই দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে করোনা আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে রূপান্তর করা হবে। তৃতীয় পর্যায়ে সিলেট নগরীর মেন্দিবাগস্থ আব্দুল মাল আব্দুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে করোনা আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে গড়ে তোলার উদ্যোগ নেয়া হবে। আইসোলেশন সেন্টারগুলোতে করোনা রোগীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও অক্সিজেন প্রদান করা হবে। আর যাদের ভেন্টিলেশন সাপোর্ট লাগবে তাদেরকে শহীদ ডা. শামসুদ্দিন হাসপতালে পাঠানো হবে।
 

জরুরি ভিত্তিতে সিলেট করোনা আইসোলেশন সেন্টারে লোকবল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

এদিকে,   করোনা ও উপসর্গযুক্ত রোগীদের জন্য সিলেটের খাদিমনগর , দক্ষিণ সুরমায়  ও সিলেট নগরীর আবুল মাল আব্দুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে  স্থানীয় প্রশাসন ও কিডনি ফাউন্ডেশন হাসপাতাল সিলেট-এর উদ্যোগে ৩টি সেবাকেন্দ্র/আইসোলেশন হাসপাতাল শীঘ্রই চালু করা হবে।

এই সেন্টারে সেবামূলক কাজের জন্য স্বেচ্ছাসেবক, নার্স/ ওয়ার্ডবয় প্রয়োজন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ স্বেচ্ছাসেবী, কর্মরত নার্স ও ওয়ার্ডবয়দের ব্যক্তিগত সুরক্ষা  নিশ্চিতকল্পে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।
স্বেচ্ছাসেবী, নার্স ও ওয়ার্ডবয়দের প্রয়োজনীয় প্রণোদনার ব্যবস্থা করা হবে। মানবিক কারণে এই ব্যবস্থাপনায় অংশগ্রহণকারীদের সরকার কর্তৃক সম্মানীত করা হবে। খাওয়া -দাওয়া ও অন্যান্য সকল সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে।

মানবসেবায় কাজ করতে আগ্রহী প্রার্থীদের আগামী ১৫ জুন ২০২০ইং-এর মধ্যে ডাঃ কাজী মুশফিক আহমদ, এক্সিকিউটিব ডিরেক্টর, কিডনি ফাউন্ডেশন হাসপাতাল, সৈয়দ প্লাজা, চতুর্থতলা, মাল্টিপ্ল্যান শাহজালাল সিটি, শাহজালাল উপশহর, মোবাইল নং ০১৭৩০-৫৮৫০৩৫, ০১৭৮৯-৪৪৪৯৫৮, পজভন-০৮২১-৭১৯৫৯৮, [email protected] সিলেট এ যোগাযোগ করতে বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

লাইফস্টাইল বিভাগের সর্বাধিক পঠিত