ঢাকা, ১৬ এপ্রিল, ২০২১
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
ঢাকাসহ সারাদেশে বিজিবি মোতায়েন, থমথমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সুবর্ণজয়ন্তীতে ফুল ছিটানোর বদলে রাজপথে রক্ত ঝরলো:মির্জা ফখরুল কাল বিক্ষোভ, রোববার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে হেফাজত সব প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে বাংলাদেশ এখন সমৃদ্ধির পথে:প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে কেউ কখনও দাবিয়ে রাখতে পারবে না: মোদি হাটহাজারীতে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ: পুলিশ-হেফাজত সংঘর্ষ, নিহত ৪ ঢাকায় এসেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি, লাল গালিচা সংবর্ধনা

এসকে সুর ও শাহ আলমকে আগে গ্রেফতার করুন: হাইকোর্ট

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০২১  

এস কে সুর ও শাহ আলম। ছবি: সংগৃহীত

এস কে সুর ও শাহ আলম। ছবি: সংগৃহীত

আর্থিক প্রতিষ্ঠান দেখভালের দায়িত্বে থেকে পিকে হালদারের অর্থ পাচারে জড়িত থাকার অভিযোগ আসার পরেও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও বর্তমান নির্বাহী পরিচালক শাহ আলমকে গ্রেফতার না করায় দুদকের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে হাইকোর্ট।

আদালত বলেছে, এই দুজনকে গ্রেফতার করছেন না কেন? দুদক পদক্ষেপ না নিলে আদেশ দিতে বাধ্য হবো। আগে তাদের গ্রেফতার করুন। কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে মেহমানদারী করতে পারেন না। তাদের অবশ্যই গ্রেফতার করে কারাগারে নিতে হবে।

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ সোমবার (১৫ মার্চ) এসব কথা বলেন।


হাইকোর্ট বলেন, বাংলাদেশকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলতে হলে দুর্নীতিবাজদের এই দেশ থেকে বিতাড়িত করতেই হবে। শুধু আইন করে দুর্নীতি দূর করা যাবে না, প্রতিটি ঘরকে দুর্নীতিবিরোধী দূর্গ বানাতে হবে। ছাত্র, শিক্ষক, আপামর জনগণ ও সাংবাদিকদের দুর্নীতি বিরোধী কাজে অংশগ্রহণ থাকলে দেশকে সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব।

এদিকে পিকে হালদারের দেশত্যাগ ঠেকাতে দুদকের চিঠি ফাঁস হওয়া নিয়ে কোনো পক্ষ দায় নিতে রাজি নয়। এ নিয়ে হাইকোর্ট বলেছে, উনার দেশত্যাগের ক্ষেত্রে দুদকের বা ইমিগ্রেশন পুলিশেরই হোক কারও না কারও আন্তরিকতার অভাব রয়েছে। কার অবহেলা রয়েছে আমরা সেটা খুঁজে বের করবো। আপনাদের বক্তব্য ৬ এপ্রিলের মধ্যে এফিডেভিট করে দাখিল করবেন।

 


সোমবার শুনানিতে দুদকের আইনজীবীর উদ্দেশ্যে হাইকোর্ট বলেন, পি কে হালদারের অর্থ পাচারের মামলায় গ্রেফতারকৃত দুই আসামির জবানবন্দিতে এস কে সুর ও শাহ আলমের নাম এসেছে, তাদের বিষয়ে দুদক কী পদক্ষেপ নিয়েছে। দুদক আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, জবানবন্দিতে যাদের নাম এসেছে, তাদের কাউকে কাউকে গ্রেফতার করা হয়েছে, কেউ কেউ পলাতক। আদালত বলেন, এস কে সুর ও শাহ আলমকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না কেন? দুদক আইনজীবী বলেন, কমিশনের চিঠির ভিত্তিতেই বাংলাদেশ ব্যাংকের বিএফআইইউ তাদের ব্যাংক হিসাব জব্দ করেছে। হাইকোর্ট বলেন, এদের গ্রেপ্তার না করলে আদেশ দিতে বাধ্য হব।

দুদক কৌসুলি বলেন, আমরা কাউকে মেহমানদারি করছি না। পিকে হালদারকে আমরাই আবিষ্কার করেছি। আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে ও হচ্ছে।

প্রসঙ্গত পিকে হালদারের দুই সহযোগী ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রাশেদুল হক ও পিপলস লিজিংয়ের সাবেক চেয়ারম্যান উজ্জ্বল কুমার নন্দীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এস কে সুর ও শাহ আলমের নাম আসে। সেখানে তারা বলেছেন, লাখ লাখ টাকা নিয়ে এসকে সুর ও শাহ আলম পিকে হালদারের অনিয়ম গোপন রাখতেন।


দুই প্রতিবেদন হাইকোর্টে:

পিকে হালদার পালিয়ে যাওয়ার সময় বেনাপোল ও শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন পুলিশের ৫৯ জন সদস্য দায়িত্বে ছিলেন। তাদের নামের তালিকা আদালতে দাখিল করা হয়েছে। ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিনউদ্দিন মানিক বলেন, ২০১৯ সালের ২৩ অক্টোবর বিকেল পৌনে ৪টায় যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে পি কে হালদার দেশ ত্যাগ করেন। এক্ষেত্রে ইমিগ্রেশন পুলিশের কোনো ব্যর্থতা বা গাফিলতি ছিল না। পিকে হালদারের পালিয়ে যাওয়া সংক্রান্ত দুদকের চিঠি তারা পেয়েছে সে পালিয়ে যাওয়ার পরে।

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, পিকে হালদারের দেশত্যাগ ঠেকাতে দুদকের লিখিত চিঠির কপি ইমিগ্রেশন পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক রিসিভ করেছেন ২০১৯ সালের ২৩ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১০ টায়। সেটা আরও কনফার্ম করতে সেই চিঠি হোয়াটস অ্যাপে পাঠানো হয় ২টা ৪৩ মিনিটে। সেটা যে তারা রিসিভ করেছেন, সেটিও দুদকের কাছে আছে। সুতরাং দুদকের এখানে কোনো অবহেলা ছিল না।

আরও পড়ুন
বাণিজ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত