ঢাকা, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
২৫ জনকে আসামি করে আবরার হত্যার চার্জশিট:অভিযুক্তরা উচ্ছৃঙ্খল ছিল

এবার রাজশাহীতে হাত বিচ্ছিন্ন কলেজছাত্রের

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০১৯  

এবার বাসের সঙ্গে আরেকটি গাড়ির ঘর্ষণে ডান হাত হারিয়েছেন রাজশাহী কলেজের সমাজকর্ম বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ফিরোজ সরদার।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার সামনে মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটে।

ফিরোজের হাত কাটা যাবার পরও তাকে বহন করা বাসটি থামেনি ঘটনাস্থলে। সেখান থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দুরে তালাইমারিতে এসে বাস থেকে তাকে নামিয়ে দেয়া হয়।

পরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলো অস্ত্রোপচার করা হয়। রাতে দুই দফা অস্ত্রোপচারের পর তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে।

রাজধানীতে দুই বাসের রেষারেষিদে হাত হারানোর পর কলেজছাত্র রাজীব হোসেনের মৃত্যুর ঘটনা এখনো মানুষের মনে দাগ কেটে আছে। এ ঘটনায় ক্ষতিপূরণের অর্থ এখনো পায়নি রাজীবের পরিবার। এরই মধ্যে রাজশাহীতে এমন ঘটনা ঘটল।

বাসটিতে থাকা ফিরোজের সহপাঠিরা জানান, বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার মাহফুজ সরদারের ছেলে ফিরোজ সরদার। চাকরির পরীক্ষা দিয়ে নানার সঙ্গে বাড়ি থেকে একটি বাসে ফিরছিলো। বাসটি সম্ভবত রংপুর থেকে ছেড়ে আসছিলো। ফিরোজ ও তার নানা নন্দীগ্রামে বাসটিতে উঠে। তবে সহপাঠীরা বাসটির নাম বলতে পারেনি। বাসটি পুঠিয়ার বানেশ্বরে এলে এলোমেলো ও বেপরোয়া গতিতে চলতে শুরু করে।

বাসটি কাটাখালী পৌরসভার সামনে এনে বিকট জোরে শব্দ হয়। তখনই সবাই চিৎকার করে উঠে হাত গেলো হাত গেলো বলে। পরে তারা দেখতে পান ফিরোজের ডান হাত ছিড়ে গেছে। তারা সেখানে বাসটি থামাতে বললেও চালক না থামিয়ে গতি আরো বাড়িয়ে দেন। ফলে তারা বুঝতে পারেননি আঘাত লাগা অপর গাড়ীটি বাস না ট্রাক ছিলো। ফিরোজ ততক্ষনে অচেতন প্রায়।

ওই অবস্থায় বাসটি তালাইমারিতে নামিয়ে দিলে তারা ফিরোজকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে নিয়ে আসেন। তবে ফিরোজের হাতটি ঘটনাস্থলেই পড়ে থাকে। পরে কাটাখালী থানা পুলিশ হাতটি উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

কাটাখালী থানার ওসি নিবারন চন্দ্র বর্মন জানান, কিসের সঙ্গে বাসটির ঘর্ষণ লেগেছে তা কেউই খেয়াল করেনি। রাস্তায় একটি কাটা হাত পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ হাসপাতালে খবর নিয়ে জানতে পারে ফিরোজ নামের একজন সেখানে ভর্তি হয়েছেন। পরে পুলিশ হাতটি উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত