ঢাকা, ২৬ জুন, ২০১৯
SylhetNews24.com
শিরোনাম:
খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে ইইউ প্রতিনিধিদলের উদ্বেগ পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ জারদারি গ্রেফতার ৪০ লাখ ঘুষ: দুদক পরিচালক এনামুল বাসির সাময়িক বরখাস্ত ওসি মোয়াজ্জেমকে খুঁজেই পাচ্ছে না পুলিশ!

আবুল মাল আবদুল মুহিত-কে স্পোর্টস স্কুল ফুটবল লীগ শুরু শনিবার থেকে

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০১৮  

সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও সিলেট জেলা ফুটবল এসোসিয়েশন এর যৌথ আয়োজনে এবং কে-স্পোর্টস এর পৃষ্ঠপোষকতায় ও সিলেট জেলা’র ২০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে সিলেটে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘আবুল মাল আবদুল মুহিত কে-স্পোর্টস স্কুল ফুটবল লীগ-২০১৮’।

আগামী ১৭ নভেম্বর শনিবার থেকে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।  উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বেলা ২ টায় ঘটিকায় জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন সিলেটের জেলা প্রশাসক ও সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি এম কাজী এমদাদুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টায় সিলেট জেলা ক্রীড়া ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এ তথ্য জানান সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী সদস্য বিজিত চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ মো. সিরাজ উদ্দিন, সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মারিয়ান চৌধুরী মাম্মী, সিলেট জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের কার্যনিবাহী সদস্য নুরে আলম খোকন, সিলেট জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক দীপাল কুমার সিংহ প্রমুখ।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ৮০-৯০ এর দশকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরিচালিত স্কুল ফুটবল লীগ নিয়মিত অনুষ্ঠিত হতো এবং আমরাও স্কুল ফুটবল লীগ খেলে জেলা ফুটবল দলে জায়গা করে নিয়েছি।

তখনকার সময়ে স্কুল ফুটবল লীগ ছিল জাকজমকপূর্ণ এবং এতে করে তৃণমূল পর্যায় থেকে অগণিত প্রতিভাবান ফুটবল খেলোয়াড় বেরিয়ে এসেছে। যার দরুণ তখনকার সময়ে সিলেট তথা বাংলাদেশের ফুটবল চিত্রও ছিল গৌরবোজ্জ্বল। সিলেটের এই গৌরবগাঁথা ফুটবল ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে আমরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি এবং তা অব্যাহত রয়েছে ও থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে মাহি উদ্দিন সেলিম বলেন, তৃণমূল পর্যায় থেকে প্রতিভাবান ফুটবল খেলোয়াড় তৈরীর পরিকল্পনা সফল করতে হলে স্কুল ফুটবল প্রতিযোগিতা একটি গুরুত্বপূর্ণ প্লাটফরম।

এই প্রতিযোগিতা প্রতিটি জেলায় নিয়মিতভাবে আয়োজন করা হলে সিলেটে যেমন অসংখ্য পরিমাণে প্রতিভাবান ফুটবল খেলোয়াড় বেরিয়ে আসবে তথা ফুটবল অঙ্গনে গতির সঞ্চার হবে পাশাপাশি বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের জন্য প্রতিভাবান ফুটবল খেলোয়াড়ের সুদীর্ঘ পাইপলাইন তৈরী হবে এবং একদিন আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশের ফুটবল গৌরবোজ্জ্বল আসনে উন্নীত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আরও পড়ুন
বাণিজ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত