18 Feb 2018
Loading
 

প্রচ্ছদ

জাতীয়

বাণিজ্য

খেলাধুলা

তথ্যপ্রযুক্তি

শিক্ষা

বিনোদন

সাহিত্য-সংস্কৃতি

ঐতিহ্য

পর্যটন

প্রবাসের সংবাদ এক্সক্লুসিভ সংগঠন সংবাদ মুক্তিযুদ্ধ আর্কইভস
শিরোনাম:
Bread Crumbs

2018-02-11 20:23:10

২৩০ বছরের পুরনো লাল দালানে একমাত্র বন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া:অবশেষে ডিভিশন মিলেছে

সিলেটনিউজ২৪.কম

অবশেষে কারাগারে জেলকোড অনুযায়ী ডিভিশন (সামাজিক মর্যাদা অনুযায়ী প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধা) পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া।

এই ডিভিশন প্রাপ্তিতে এখন খালেদা জিয়া সাধারণ বন্দিদের চেয়ে অনেক বেশি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন। আদালতের আদেশ পাওয়ার পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগারে ডিভিশন দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন।

নাজিম উদ্দিন রোডে ২২৮ বছরের পুরনো ঠিকানা থেকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার ২০১৬ সালের ২৯ জুন থেকে ছয় হাজার ৪০০ বন্দিকে কেরানীগঞ্জের তেঘরিয়ার রাজেন্দ্রপুরের নতুন কারাগারে স্থানান্তর করে পুরান কারাগার বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

কিন্তু দুই বছর চার মাস ১০ দিন পর সাজাপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে এই পরিত্যক্ত কারাগারেই দিন পার করছেন খালেদা জিয়া।
 
কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন বলেন, “সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশেষ কারাগার হিসেবে সেখানে রাখা হয়েছে।

রোববার বিকাল ৪টার দিকে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়াসহ নয়জন কারা অধিদপ্তরে গিয়ে ডিভিশনের আদেশের বিষয়ে আদালতের আদেশের নথি দিয়ে আসেন এবং সন্ধ্যায় কারা কর্তৃপক্ষ সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানায়।   

সানাউল্লাহ মিয়া জানান, খালেদা জিয়াকে প্রথম শ্রেণির মর্যাদা দেওয়ার পাশাপাশি তার সেবায় তার গৃহকর্মী ফাতেমাকে কারাগারের রাখার অনুমতি দিয়েছে আদালত।

জিয়া এতিমখানা দুর্নীতি মামলার রায়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত। রায়ের পরপরই তাকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগার ভবনে নিয়ে যাওয়া হয়।

পরদিন বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরও কারাগারে খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে সাধারণ বন্দির মতো।

এরপর খালেদার আইনজীবীরা রোববার আদালতে ডিভিশন চেয়ে আবেদন করলে ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আখতারুজ্জামান এ বিষয়ে কারাবিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে বলেন।

রোববার দুপুরে কারা অধিদপ্তরে এক ব্রিফিংয়ে সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন বলেন, কারাবিধিতে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিষয়ে কোনো নির্দেশনা না থাকায় এবং জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে সুনির্দিষ্ট কিছু বলা না থাকায় বিএনপি চেয়ারপারসনকে একজন সাধারণ বন্দির মতই রাখা হয়েছে।

কারাগার সূত্র বলছে, জেলকোডের ৬১৭ ধারা অনুযায়ী খালেদা জিয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথম শ্রেণীর ডিভিশন পাবেন। এর ফলে তিনি সার্বক্ষণিক সঙ্গে রাখতে পারবেন ব্যক্তিগত পরিচারিকা। তার কক্ষে থাকবে অ্যাটাচড ফ্রেশরুম।

তিনি পাবেন নিত্য প্রয়োজনীয় সাধারণ প্রসাধনী, সার্বিক নিরাপত্তা, সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা, সাধারণ বন্দিদের চেয়ে অতিরিক্ত খাবার। এছাড়া পরীক্ষা করার পর বাইরে থেকে আসা নিজের পছন্দের ফলমূল বা খাবারও পাবেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী কারাগারে পাবেন একটি পত্রিকা পড়ার সুযোগ। এর বাইরে পত্রিকা পড়তে চাইলে নিজের খরচে কিনতে হবে। এছাড়া পাবেন টেলিভিশন দেখারও সুবিধা। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ টেলিভিশনেরই (বিটিভি) কথা আসছে সামনে।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার জাকির হোসেন ভুঁইয়া  বলেন, খালেদা জিয়া যেহেতু সাবেক প্রধানমন্ত্রী, সেহেতু জেলকোড অনুযায়ী তিনি প্রথম শ্রেণীর ডিভিশন পাবেন। আর এ শ্রেণীর সুবিধায় খালেদার কক্ষ শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্রের (এসি) আওতায় থাকবে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড এবং তার ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অপর পাঁচ আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

রায় ঘোষণার পরই সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীকে নেওয়া হয় নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে। এরপর শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেন তার আইনজীবীরা।

সাক্ষাৎ শেষে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, খালেদা জিয়াকে ডিভিশন দেওয়া হয়নি। তাকে সাধারণ কয়েদি হিসেবে রাখা হয়েছে। তিনি অসুস্থ হিসেবে তার সঙ্গে মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে যে গৃহকর্মী ফাতেমাকে রাখার কথা, তাকেও থাকতে দেওয়া হচ্ছে না।

Advertisement

জাতীয়-এর সর্বশেষ খবর

প্রচ্ছদ জাতীয় বাণিজ্য খেলাধুলা তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষা বিনোদন সাহিত্য-সংস্কৃতি ঐতিহ্য পর্যটন প্রবাসের সংবাদ এক্সক্লুসিভ সংগঠন সংবাদ মুক্তিযুদ্ধ আর্কইভস
Editor: Khaled Ahmed, SylhetNews24.com SNC Limited. Shah Forid Road. 30/3, Jalalabad R/A. Sylhet-3100. Bangladesh. Cell: +88 01711156789, +88 01611156789,
e-mail: [email protected], [email protected] Executive Editor: Mohammad Serajul Islam. cell:+88 01712 325665
All right ® reserved by SylhetNews24.com    Developed by eMythMakers.com & Incitaa e-Zone Ltd.